অদৃশ্য মেগা প্রকল্প দৃষ্টিগোচর করতে প্রচারণা ব্যয় বাড়ছে

June 5, 2017 11:21 amComments Off on অদৃশ্য মেগা প্রকল্প দৃষ্টিগোচর করতে প্রচারণা ব্যয় বাড়ছেViews: 8
Print Friendly and PDF
FaceBook YouTube

অদৃশ্য মেগা প্রকল্প দৃষ্টিগোচর করতে প্রচারণা ব্যয় বাড়ছেঃ
মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন: আগামী ২০১৭-১৮ অর্থবছরই হচ্ছে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে সরকারের জন্য পূর্ণাঙ্গ শেষ অর্থবছর। কিন্তু পদ্মা সেতু, পদ্মা রেল সংযোগ, মেট্রোরেল, মাতারবাড়ি বিদ্যুেকন্দ্র, পায়রা গভীর সমুদ্রবন্দরসহ বড় বড় সব মেগা প্রকল্পের অগ্রগতি এখনও অদৃশ্যমান রয়ে গেছে। অদৃশ্যমান এসব মেগা প্রকল্প দৃশ্যমান করতে প্রচারণা ব্যয় বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে বাংলাদেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড প্রদর্শন শীর্ষক প্রকল্পের ব্যয়  ৪ কোটি ৪২ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৬ কোটি ২১ লাখ টাকা করার প্রস্তাব করেছে প্রকল্পের বাস্তবায়নকারী সংস্থা পরিকল্পনা বিভাগ। তবে ব্যয় বাড়লেও প্রকল্পের মেয়াদ ২০১৮ সালের ডিসেম্বর পর্যন্তই রাখা হয়েছে।

সম্প্রতি পরিকল্পনা কমিশনের ভৌত অবকাঠামো বিভাগের সদস্য জুয়েনা আজিজের সভাপতিত্বে প্রকল্পের সংশোধনী প্রস্তাবের ওপর প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির সভা (পিইসি) অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সংশোধনী প্রস্তাব অনুমোদনের জন্য সুপারিশ করা হয়েছে। প্রকল্প অনুমোদনে পরিকল্পনা মন্ত্রীর ক্ষমতাবলে সংশোধিত  প্রস্তাব দ্রুত সময়ে অনুমোদন করা হবে বলেও জানান পরিকল্পনা বিভাগের কর্মকর্তারা। এ বিষয়ে জানতে চাইলে পরিকল্পনা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব কাজল ইসলাম কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। সংশ্লিষ্টরা জানান, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় এসে অবকাঠামো খাতের বেশ কিছু প্রকল্প হাতে নেয়। সাধারণ মানুষকে উন্নয়ন সম্পর্কে জানাতে ২০১৬ সালে প্রকল্পটি বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়। মূলত পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের ভাবনা থেকে প্রকল্পটি নেওয়া হয়েছে। আগামী সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের ব্যয় বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। অনেকেই একে সরকারি খরচে দলীয় প্রচারণা বলছেন।

উন্নয়নের মহাসড়কে বাংলাদেশ-এ স্লোগান দিয়ে আগামী ২০১৭-১৮ অর্থবছরের ৪ লাখ ২৬৬ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। আর সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ১ লাখ ৫৩ হাজার ৩৩১ কোটি টাকা। সরকার আশা করছে, আগামী অর্থবছরে বহুল আলোচিত পদ্মা সেতুসহ বেশ কয়েকটি বড় প্রকল্প দৃশ্যমান হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়েছে বাজেট বক্তৃতায়। পরিকল্পনা বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, প্রকল্পের আওতায় ডিজিটাল পদ্ধতিতে সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম জনগণের সামনে তুলে ধরার উদ্যোগ নিয়েছেন স্বয়ং পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এর অংশ হিসেবে জেলা পর্যায়ে বড় আকারের জায়ান্ট স্ক্রিন স্থাপন করা হবে। এ জায়ান্ট স্ক্রিনে সারা বছর ২৪ ঘণ্টাব্যাপী বিভিন্ন উন্নয়ন ফিরিস্তি প্রচার করা হবে। প্রকল্পটির শুরুর আগে এ কাজের অভিজ্ঞতা দিতে ২০১৫ সালের জুলাইয়ে যুক্তরাজ্য সফর করেছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী। পরিকল্পনা মন্ত্রী নিজ খরচে গেলেও ওই সফরে সরকারি খরচে ভ্রমণ করেছেন পরিকল্পনা কমিশনের দুই কর্মকর্তা।
সূত্রঃ সকালের খবর 

সর্বশেষ সংবাদ

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.