আরো বিতর্কিত ফিফা

October 12, 2015 11:20 pmComments Off on আরো বিতর্কিত ফিফাViews: 18
Print Friendly and PDF
FaceBook YouTube

আরো বিতর্কিত ফিফা

মঙ্গলবার, ১৩ অক্টোবর ২০১৫

ফিফা সভাপতি সেপ ব্লুাটার, মহাসচিব জেরোমে ভালকে ও সহ-সভাপতি মিশেল প্লাতিনিকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির এথিক্স কমিটি বৃহস্পতিবার ৯০ দিনের জন্য তাদের বরখাস্ত করে। ফুটবল সংক্রান্ত সব ধরনের কার্যক্রম থেকে তারা নিষিদ্ধ থাকবেন। এই কমিটি ব্লুাটার, ভালকে ও উয়েফা প্রেসিডেন্ট প্লাতিনির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে তদন্ত করছে। তিনজনই অবশ্য কোনো ধরনের দুর্নীতিতে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছেন। এছাড়া ফিফার সাবেক সহ-সভাপতি চুং মং-জুনকে ছয় বছরের জন্য নিষিদ্ধ ও ১ লাখ সুইস ফ্র্যাঁ জরিমানা করা হয়েছে।

সুইস কর্তৃপক্ষ ব্লুাটারের বিরুদ্ধে গত মাসে ফৌজদারি তদন্ত শুরু করার পর ফিফার এথিক্স কমিটি জুরিখে এ সপ্তাহে বৈঠকে বসে। বুধবার কমিটির তদন্ত উইং সুইজারল্যান্ডের বর্ষীয়ান এই ফুটবল সংগঠককে সাময়িক বরখাস্ত করার সুপারিশ করেছিল। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে কমিটি জানায়, এথিক্স কমিটির তদন্ত বিভাগ নিয়ে তদন্ত চালানোর পর এই সিদ্ধান্তগুলো দেয়া হয়েছে।

সুইস কর্তৃপক্ষের অভিযোগ, ৭৯ বছর বয়সী ব্লুাটার ‘ফিফার জন্য নেতিবাচক’ এমন চুক্তি করেছেন এবং ইউরোপিয়ান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মিশেল প্লাতিনিকে ‘অবৈধ উপায়ে অর্থ’ দিয়েছেন।

১৯৯৮ সাল থেকে ফিফা প্রধানের দায়িত্বে থাকা ব্লুাটার অবশ্য প্রথম থেকেই কোনো ধরনের অপরাধ করার অভিযোগ অস্বীকার করে আসছিলেন। ব্লুাটারের উত্তরসূরি হতে চাওয়া প্লাতিনিও দুর্নীতির অভিযোগ উড়িয়ে দেন।

এথিক্স কমিটি প্লাতিনির বিরুদ্ধেও নয় বছর আগে নেয়া ২০ লাখ ইউরো নেয়া নিয়ে তদন্ত করছে। ৬০ বছর বয়সী সাবেক এই ফুটবল তারকা ব্লুাটারের উপদেষ্টা হিসেবে তখন কাজ করেছিলেন। আর ৫৪ বছর বয়সী ভালকের বিপক্ষে অভিযোগ, তিনি বিশ্বকাপের টিকেট বিক্রি থেকে লাভবান হয়েছিলেন।

কয়েক দিন আগে ফিফার চার প্রধান স্পন্সর কোকা-কোলা, ভিসা, বাডওয়াইজার ও ম্যাকডোনাল্ডস ব্লুাটারের পদত্যাগের দাবি জানায়। তবে এই চাপের পরেও সরে না দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছিলেন সুইস নাগরিক ব্লুাটার। বুধবার জার্মান একটি সাময়িকীকে ব্লুাটার জানান, দুর্নীতির কোনো প্রমাণ ছাড়াই তাকে দোষ দেয়া হচ্ছে।

ফিফার সভাপতি পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত হওয়ার এক দিন পর এথিক্স কমিটির সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করেন ব্লুাটার। ব্লুাটারের বন্ধু ও পরামর্শক ক্লাউস স্টলকার বলেন, তিনি (ব্লুাটার) এরই মধ্যে ফিফার আপিল কমিটির কাছে আপিল করেছেন। তিনি তার অবস্থানেই লড়বেন। তিনি নিশ্চিত যে, তিনি দোষী প্রমাণিত হবেন না।

ব্লুাটারের অনুস্থিতিতে ফিফার ভারপ্রাপ্ত সভাপতির কাজ চালাচ্ছেন সংস্থাটির সবচেয়ে বেশি সময়ের সহ-সভাপতি এবং আফ্রিকার ফুটবল কনফেডারেশনের প্রধান ইসা হায়াতু।

ব্লুাটারের এক দিন পর সহ-সভাপতি মিশেল প্লাতিনিও ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থাটির দেয়া সাময়িক নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে আপিল করেন। অনেকেই মনে করেন, ব্লুাটারের উত্তরসূরি হওয়ার ক্ষেত্রে উয়েফা প্রধান প্লাতিনি অনেকটাই এগিয়ে আছেন। ফ্রান্সের সাবেক ফুটবলার এখনো ফিফা সভাপতি নির্বাচন করার পরিকল্পনা করছেন। উয়েফার সমর্থনও পাচ্ছেন তিনি। ইউরোপের ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি আগামী সপ্তাহে জরুরি সভা ডেকেছে।

এর আগে বছরের শুরুতে ঘুষ নেয়ার অভিযোগে ১৪ জন ফিফা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে যুক্তরাষ্ট্র কর্তৃপক্ষ। গত মে মাসে যুক্তরাষ্ট্র কর্তৃপক্ষের আনা দুর্নীতির অভিযোগে ফিফার সাত কর্মকর্তাকে গ্রেপ্তার করে সুইস পুলিশ। এর দুই দিন পর ২৯ মে ফিফা সভাপতি নির্বাচনে পঞ্চমবারের মতো জেতেন ব্লুাটার। দুর্নীতির অভিযোগ ওঠার পর ২ জুন তিনি আগামী বছরের ফেব্রুয়ারিতে পদত্যাগ করবেন বলে ঘোষণা দেন তিনি। পরে ২০১৮ ও ২০২২ সালের বিশ্বকাপের আয়োজক নির্বাচনের প্রক্রিয়া নিয়ে সুইস কর্তৃপক্ষও ফিফা কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে

সর্বশেষ সংবাদ

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.