নাসিরনগরে হামলা : ৩ আ.লীগ নেতা বহিষ্কার

November 4, 2016 9:34 pmComments Off on নাসিরনগরে হামলা : ৩ আ.লীগ নেতা বহিষ্কারViews: 57
Print Friendly and PDF
FaceBook YouTube

নাসিরনগরে আরো এক প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন

নাসিরনগরে আরো এক প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন ছবিটি ফাইল: নাসিরনগরে একটি মন্দিরে ভাঙচুরের চিত্র

গত শনিবার (২৯ অক্টোবর) ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের হরিণবেড় গ্রামের উদ্ভুত পরিস্থিতিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় আরো এক প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে।

শুক্রবার (৪ অক্টোবর) থেকে সেখানে মোট দুই প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদর দফতর।

শুক্রবার রাতে পাঠানো ওই বার্তায় বিজিবি সদর দফতর জানায়, নাসিরনগরে সৃষ্ট পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে গত ২৯ অক্টোবর থেকে ১ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন রয়েছে। আজ থেকে সেখানে আরো এক প্লাটুন অর্থাৎ মোট দুই প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হলো।

উল্লেখ্য, গত শনিবার নাসিরনগর উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের হরিণবেড় গ্রামের জগন্নাথ দাসের ছেলে রসরাজ দাস তার ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে পবিত্র কাবা শরিফ নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র করে একটি পোস্ট দেন।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুষ্কৃতিকারীরা উপজেলা সদরে হিন্দু সম্প্রদায়ের ১০টি মন্দির ও শতাধিক ঘর-বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়। এ ঘটনার পর শুক্রবার ভোরে আবারো হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্তত ৫টি গোয়াল ও রান্নাঘরে অগ্নিসংযোগ করেছে দুর্বৃত্তরা।

হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর তাণ্ডব চালানোর ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে উপজেলার তিন নেতাকে বহিষ্কার করেছে আওয়ামী লীগ। শুক্রবার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বহিষ্কৃতরা হলেন- উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ- প্রচার সম্পাদক আবুল হাসেম, হরিপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ফারুক আহমেদ ও চাপৈরতলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সুরুজ আলী। এছাড়া ঘটনা তদন্তে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হেলাল উদ্দিনকে আহ্বায়ক করে একটি দলীয় অভ্যন্তরীণ তদন্ত কমিটিও গঠন করেছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার

ঘটনায় সরকার নির্বিকার নয় : ওবায়দুল কাদের

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঘটনায় সরকার নির্বিকার নয় : ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘আমরা (সরকার) নির্বিকার নই। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঘটনায় শেখ হাসিনার সরকার অত্যন্ত কঠোর অবস্থানে। যারা এ অপরাধ সংগঠিত করেছে, শাস্তি তাদের পেতেই হবে।’

শুক্রবার রাজধানীর বনানী মডেল হাই স্কুলে গারোদের ঐতিহ্যবাহী ‘ওয়ানগালা’ উৎসবের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আপনারা নিজেদের মাইনরিটি ভাববেন না। বাংলাদেশে আপনাদেরও সমান অধিকার। হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রীস্টানসহ সকল ধর্মের লোকজন কেউ মেজরিটি, মাইনরিটি বলে সমান অধিকার পাচ্ছে না। সমান অধিকার পাচ্ছে এ দেশের নাগরিক হিসেবে। নিজেদের মাইনরিটি না ভেবে মাথা উচুঁ করে বাঁচবেন, মাথা নিচু করবেন না।’

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘ভয়কে জয় করতে হবে, জীবন হচ্ছে একটা সংগ্রাম। যে আকাশে মেঘ নেই সেটা আকাশ নয়। যে নদীতে ঢেউ নেই সেটা নদী নয়, যেখানে গর্জন নেই সেটা সাগর নয়, দুর্যোগ যেখানে নেই সেটা প্রকৃতি নয়। এটাই বৈচিত্র্য, নদীতে ঢেউ থাকবে, সাগরের গর্জন থাকবে, আকাশে মেঘ থাকবে, এই যে বৈচিত্র। সব কিছু মিলিয়ে আমাদের এই বাংলাদেশ। আমি আপনাদের কাছে অনুরোধ করবো জীবনের চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করবেন সাহসের সঙ্গে।’

ঐতিহ্যবাহী ‘ওয়ানগালা’ উৎসব উদযাপন পরিষদের সভাপতি নকমা দুর্জয় তজুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, কেন্দ্রীয় সদস্য রেমন্ড আরেং, সংসদ সদস্য জুয়েল আরেং প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নাসিরনগরে হামলা : ৩ আ.লীগ নেতা বহিষ্কার

 
নাসিরনগরে হামলা : ৩ আ.লীগ নেতা বহিষ্কার বহিষ্কৃত ফারুক আহমেদ ও আবুল হাসেম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পবিত্র কাবা শরিফকে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র করে পোস্ট দেয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর দুষ্কৃতিকারীদের চালানো তাণ্ডবের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে উপজেলা আওয়ামী লীগের তিন নেতাকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

শুক্রবার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানা গেছে। বহিষ্কৃতরা হলেন- উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ- প্রচার সম্পাদক আবুল হাসেম, হরিপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ফারুক আহমেদ ও চাপৈরতলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সুরুজ আলী।

এছাড়া ঘটনা তদন্তে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হেলাল উদ্দিনকে আহ্বায়ক করে একটি দলীয় অভ্যন্তরীণ তদন্ত কমিটিও গঠন করেছে। কমিটির বাকি সদস্যরা হলেন- বিজয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জহিরুল ইসলাম ভূইয়া, সরাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অ্যাড. নাজমুল হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. মাহবুবুল আলম খোকন ও শাহআলম সরকার।

brahmanbaria
এ ব্যাপারে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার সাংবাদিকদের বলেন, হিন্দু সম্প্রদায়ের মন্দির ও ঘর-বাড়িতে চালানো হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনায় বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ ও তথ্যচিত্রে উস্কানিদাতা এবং জঙ্গি মিছিলে সম্পৃক্ততার গুরুতর অভিযোগ উত্থাপিত হওয়ায় জেলা আওয়ামী লীগের জরুরি সভায় ওই তিন নেতাকে দল থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়। এছাড়া অভিযোগ তদন্তে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হেলাল উদ্দিনকে আহ্বায়ক করে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট একটি দলীয় অভ্যন্তরীণ তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে। এ কমিটিকে সরেজমিন তদন্ত করে আগামী সাত দিনের মধ্যে মতামতসহ লিখিত প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৯ অক্টোবর নাসিরনগর উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের হরিণবেড় গ্রামের জগন্নাথ দাসের ছেলে রসরাজ দাস তার ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে পবিত্র কাবা শরিফ নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র করে একটি পোস্ট দেন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুষ্কৃতিকারীরা উপজেলা সদরে হিন্দু সম্প্রদায়ের ১০টি মন্দির ও শতাধিক ঘর-বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়। এ ঘটনার পর শুক্রবার ভোরে আবারো হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্তত ৫টি গোয়াল ও রান্নাঘরে অগ্নিসংযোগ করেছে দুর্বৃত্তরা।
সূত্রঃ জাগোনিউজ২৪

সর্বশেষ সংবাদ

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.