ভিন্ন স্বাদের হরেক রকম পোলাও-বিরিয়ানী

October 12, 2015 12:23 amComments Off on ভিন্ন স্বাদের হরেক রকম পোলাও-বিরিয়ানীViews: 159
Print Friendly and PDF
FaceBook YouTube

ভিন্ন স্বাদের হরেক রকম -

ভিন্ন স্বাদের হরেক রকম পোলাও-বিরিয়ানীবিফ তেহারী: কোরবানির ঈদ মানেই ফ্রিজ ভরা গরুর মাংস। তাহলে তেহারী হবে না কেন? ঈদের দিন খুব কম সময়ে ঝটপট তৈরি করে ফেলতে পারবেন গরুর তেহারী।

প্রয়োজনীয় উপকরণ: চিনি গুঁড়া চাল ৫শ গ্রাম, গরুর মাংস দেড় কেজি, তেল ১ কাপ, লবণ স্বাদমতো, ঘি ১ টেবিল চামচ, টমেটো সস আধা কাপ, টক দই আধা কাপ, চিনি স্বাদমতো, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, রসুন বাটা ১ চা চামচ, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, জয়ত্রী, গোলমরিচ, জয়ফল, এলাচ, লবঙ্গ, জিরা, এলাচ, দারচিনি সব মিলিয়ে গুঁড়া ১ চা চামচ, তেজপাতা ২টি, পোস্তা বাটা ১ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ ৮/৯টি।
প্রস্তুত প্রণালী: মাংস ছোট ছোট আকারে কেটে নিন। এরপর সব মসলা দিয়ে মাংস মেখে ১ ঘণ্টা ঢেকে রেখে দিন। তারপর ভালো করে কষিয়ে মাংস রান্না করতে হবে। অন্য একটি পাত্রে গরম তেলে চাল ভেজে পোলাও রান্না করতে হবে। পানি শুকিয়ে আসলে মাংস ঢেলে অল্প আঁচে রান্না করতে হবে। নামানোর আগে ঘি ও কাঁচামরিচ ছিটিয়ে ঢাকনা দিয়ে কিছুক্ষণ ঢেকে রাখতে হবে। ব্যস তৈরি হয়ে গেছে তেহারী। এবার সুন্দর করে সাজিয়ে গরম গরম পরিবেশন করার পালা।

দই পোলাও: ঝাল গরুর মাংস বা খাসির রেজালার সঙ্গে একেবারে যুগলবন্দি এই দই পোলাও। আর তৈরি করা যায় খুব দ্রুত। এবার কোরবানির ঈদে সবার মুখে প্রশংসা পেতে বানিয়ে নিতে পারেন ভিন্ন স্বাদের এই পোলাও।

প্রয়োজনীয় উপকরণ: চাল ৫শ গ্রাম, টক দই আধা কাপ, মিষ্টি দই ১ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি ১ টেবিল চামচ, এলাচ, দারচিনি ৩টি, কিসমিস ১ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ ৬ /৭টি, ঘি ১ কাপ, লবণ স্বাদমতো, পানি ১ লিটার।

প্রস্তুত প্রণালী: চাল ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখতে হবে। প্যানে ঘি ও সব মসলা দিয়ে চাল ভাজতে হবে। ভাজা হয়ে গেলে দই দিয়ে নেড়ে পানি দিয়ে ঢেকে রান্না করতে হবে।

গরুর মাংসের ভুনা খিচুড়ি: বেশিরভাগ বাঙালীর প্রিয় খাবার গরুর মাংস ও ভুনা খিচুড়ি। ভিন্নতা আনতে সেটিও বানিয়ে নিতে পারেন ঘরেই।

প্রয়োজনীয় উপকরণ: গরুর মাংস ১ কেজি, চিনি গুঁড়া চাল আধা কেজি, মুগডাল ২৫০গ্রাম, পেঁয়াজ কুচি ১কাপ, রসুন কুচি আধা কাপ, আদাবাটা ২ টেবিল চামচ, ধনে গুঁড়া আধা চা চামচ, কাঁচামরিচ ৭/৮টি, তেজপাতা ২টি, এলাচ, দারচিনি ৩টি, গরম মসলা গুঁড়া আধা চা চামচ, ঘি ১ টেবিল চামচ, তেল আধা কাপ, পেঁয়াজ বেরেস্তা আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো।
প্রস্তুত প্রণালী: চাল ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। তারপর মাংস ছোট টুকরা করে কেটে নিন। মুগ ডাল ভেজে ধুয়ে নিন। সমস্ত মসলা দিয়ে মাংস কষিয়ে রান্না করে ঝোলসহ নামিয়ে রাখুন। অন্য পাতিলে তেল গরম করে এলাচ, দারচিনি, তেজপাতা, পেঁয়াজ কুচি, রসুন কুচি, ভেজে চাল ও ডাল দিয়ে ভালো করে ভাজতে হবে। ভাজা হলে পরিমাণমতো, পানি ও মাংস ঢেলে রান্না করতে হবে। পানি শুকিয়ে এলে পেঁয়াজ বেরেস্তা, কাঁচামরিচ, ও ঘি দিয়ে ঢেকে ১৫ মিনিট রাখতে হবে। ব্যস তৈরি হয়ে যাবে লোভনীয় গরম গরম গরুর মাংসের ভুনা খিচুড়ি।

কাশ্মীরি পোলাও: ঈদের দিন দুপুরে খুব একটা মেহমান না এলেও রাতে বাসা ভরে ওঠে মেহমানে। তাই এবার ঈদে মেহমান ও পরিবারের সদস্যদের জন্য ভিন্ন স্বাদের বাহারী কাশ্মীরি পোলাও তৈরি করুন। ঘরে বসেই পাবেন রেস্টুরেন্টের স্বাদ। সঙ্গে খাসির কোরমা থাকলে স্বাদ দ্বিগুণ হয়ে যাবে নিশ্চিত।

প্রয়োজনীয় উপকরণ: বাসমতি চাল ২ কাপ, দারচিনি ২টি, জিরা আধা চা চামচ, লবঙ্গ ৩টি, তেজপাতা ১টি, দুধ ২ কাপ, ক্রিম আধা কাপ, চিনি আধা চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, ঘি ২ টেবিল চামচ, কিসমিস, কাজুবাদাম, জাফরান সামান্য, কাঠবাদাম আধাকাপ, বেরেস্তা ১ টেবিল চামচ।
প্রস্তত প্রণালী: দুধ, চিনি, লবণ, ক্রিম একসঙ্গে মিশাতে হবে। চাল ৩০ মিনিট পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে। প্যানে ঘি দিয়ে তাতে জিরা, লবঙ্গ, তেজপাতা, এলাচ, দারচিনি ভেজে চাল দিতে হবে। দুধের মিশ্রণ ও আধা কাপ পানি ২ ঘণ্টা রেখে দিতে হবে। চাল ১০ মিনিট ভিজিয়ে রেখে অর্ধসিদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে। ঘি ও মসলা দিয়ে পোলাও রান্না করতে হবে। একটি পাতিলে রান্না করা পোলাও দিয়ে তার ওপর দুধ, বেরেস্তা, গরম মসলা গুঁড়া, ঘি ও জাফরান দিয়ে ঢেকে দমে রাখতে হবে।

মাটন কাচ্চি বিরিয়ানী: কাচ্চির নাম শুনলেই জিভে পানি চলে আসেনা এমন মানুষ খুব কমই আছে। এই কোরবানির ঈদে ঘরেই তৈরি করতে পারেন রেস্টুরেন্টের মতো সুস্বাদু কাচ্চি বিরিয়ানী। জমজমাট হয়ে উঠবে আপনার খাবার টেবিল।

প্রয়োজনীয় উপকরণ: খাসির মাংস ১ কেজি, বাসমতি চাল ৫শ গ্রাম, টক দই আধা কাপ, ঘি ১ কাপ, জাফরান সামান্য, আলু বোখারা ৪টি, পেঁয়াজ বাটা ২ টেবিল চামচ, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ চা চামচ, জয়ফল, জয়ত্রী, লবঙ্গ, শাহী জিরা গুঁড়া সব মিলিয়ে আধা চা চামচ, পোস্তা বাটা ১ টেবিল চামচ, আলু ৪টি, পেঁয়াজ বেরেস্তা আধাকাপ, গোলাপজল ১ চা চামচ, কাঁচামরিচ ৭/৮টি।
প্রস্তুত প্রণালী: মাংস ধুয়ে পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে ৩০ মিনিট। এরপর ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে। মাংসের সঙ্গে সব মসলা মাখিয়ে ৩ ঘণ্টা রেখে দিতে হবে। অন্য একটি প্যানে পোলাও আধা সেদ্ধ করে রেঁধে নিতে হবে। এরপর রান্না করা মাংস, পোলাওয়ের ওপর দিয়ে দমে রাখতে হবে। এবার ঘি গরম করে ড্রাই ফ্রুটস ভেজে পোলাওয়ের ওপর দিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

কিমা মুগ পোলাও: প্রতিবছরের মতো এবার কোরবানির ঈদে সাদা পোলাও না রেঁধে নাহয় ট্রাই করুন নতুন ও ভিন্ন স্বাদের কিছু। সেক্ষেত্রে কিমা মুগ পোলাওর কোনো জুরি নেই। ভিন্ন স্বাদের মুখরোচক এই আইটেমটি আপনার পরিবারের সবাইকে সত্যিই অনেক আনন্দ দিবে। কারণ নতুন ও মজাদার কিছু কার না ভালো লাগে?

প্রয়োজনীয় উপকরণ: গরুর কিমা ৪শ গ্রাম, মুগ ডাল ২৫০শ গ্রাম, চিনি গুঁড়া চাল আধা কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, রসুন কুচি ১ টেবিল চামচ, শুকনো মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, এলাচ, দারচিনি, তেজপাতা ৪টি করে, কাঁচামরিচ ৬/৭টি, গরম মসলা আধা চা চামচ, তেল ১ কাপ, টক দই আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো।

প্রস্তুত প্রণালী: মুগ ডাল ও চাল ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখতে হবে। একটি প্যানে সব মসলা তেলে ভেজে কিমা রান্না করতে হবে। অন্য একটি পাত্রে তেল দিয়ে তাতে পেঁয়াজ কুচি, আদা বাটা, চাল ও ডাল ভেজে পানি দিয়ে রান্না করতে হবে। পানি শুকিয়ে এলে এর ভিতর কিমা দিয়ে নেড়ে ঢেকে রাখতে হবে। কিছুক্ষণ পর নামিয়ে পরিবেশন করুন। ঘ্রাণেই সবাই ছুটে আসবে খাবার টেবিলের কাছে।

সর্বশেষ সংবাদ

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.