ভয়াল ২১ শে আগস্ট স্মরণে পঙতিমালা

August 23, 2014 1:31 amComments Off on ভয়াল ২১ শে আগস্ট স্মরণে পঙতিমালাViews: 32
Print Friendly and PDF
FaceBook YouTube

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিবেদিত পঙতিমালা
image
পচাত্তুরের পনেরোই আগষ্ট বেলজিয়ায়ামের
একটি ছোট বিমান বন্দরে তুমি
সবুজের মাঝে লালসূর্য পতাকা শোভিত
বাংলার মানচিত্রে অঁকা একটি ছোট বই হাতে
ইমিগ্রেশন অফিসারের সন্মুখে ছিলে যখন দাড়িয়ে
বিমানে ওঠার ছাড় পত্রের আশায়
বইটি ইমগ্রেশণ অফিসার নিয়ে হাতে
করেছিলেন প্রশ্ন তুমি কি বাংলাদেশী?
তোমার হ্যাঁ সুচক উত্তর শুনে
তিনিই দিয়েছিলেন প্রথম
সেই নির্মম ভয়াবহ নিষ্ঠুর সংবাদটি
জাতিরজনক বঙ্গমাতা ভাই ভাবীদের
রক্তের দৌহিত্রদের হত্যার দু:সংবাদ
আর কেউ ছিলানা তোমার পাশে তখন
শান্তনা দেবার,কিই বা ছিল শান্তনার
কে পারে দিতে তা ঐ দু:সংবাদের
একা ! বড় একা ছিলে তুমি ! বড় একা
হয়ে গেছিলে তুমি অাপা
এই পৃথিবী তখন তোমার কাছে হয়ে গেছিল
অচেনা এক গ্রহ
বাংলাদেশের মানচিত্র সরে যাচ্ছিল
তোমার দুচোখের দুয়ার থেকে দুরে দুরে
লালসবুজের পতাকাকে মনে হয়েছিল
পিতার মা’র কামাল জামাল রাসেলের
রক্তাক্ত লাশ
তারপর সব শোনা আর হয়নি তোমার
সবশেষ সবহীন সবহারা তুমি
কেউ ছিলনা পাশে দিতে শান্তনা
সেদিন কেঁদেছিল কি বেলজিয়ামের
সেই ছোট বিমান বন্দরের ইট পাথর
কেঁদে ছিলো কি সেই ইমিগ্রেশন অফিসার
যখন জেনেছিল তুমি ের কন্যা
সেই থেকে মরনের সাথে তোমার বসবাস,
মৃত্যু আর পারেনি দেখাতে ভয় তোমাকে
জনককে করেছিল যারা হত্যা সপরিবারে
তারা দেশে দেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে
কেবলই তোমাকে হত্যা করার কৌশলে মত্ত
উন্মাদ দানবীয় শক্তিতে
কেনো তাদের এই অভিপ্রায়
কোনো এতো সাধ তাদের
কেনো তোমার মৃত্যু ওদের কাছে
এতো অপরিহার্য এতো প্রয়োজন
বিনিদ্র রাত্রিদিন কাটে পশুদের
শুধু তোমাকে করতে হত্যা
তাদের কত উপকার করেছ তুমি, কে জানে
কিন্তু ইতিহাস হাসে,ইতিহাস কাঁদে
কাঁদে এই বাংলার মাটি বৃক্ষ তরু লতা নদী
সাগর ঝর্না দোয়েল শালিক
হাজার প্রশ্ন তাদের-
কেনো কোনো এই ষঢ়যন্ত্র কেনো সীমাহীন শক্রুতা
তোমাকে হত্যা করার জন্যে
এতো কেনো তাদের নিষ্ঠুর আয়োজন
কি ক্ষতি করেছ তুমি তাদের
ঘোরে তারা তোমার সন্মুখে পশ্চাতে
হন্তারক দলেদলে গোপনে গোপনে
কি তোমার অপরাধ ?
অপরাধ কি শুধু এই তোমাকে পাঠাতে পারলে
অন্তিম যাত্রায়
এই দেশ এই মাটি লুটে পুটে খাবে জল্লাদের দল
পশু জানোয়ার দস্যু তস্কর গিলে খাবে
পদ্মা মেঘনা যমুনার সব জল
তাই নদী কাঁদে সাগর কাঁদে কাঁদে ঝর্নার জল
উত্তর তার মেলেনা
সেইযে শক্রুরা যাচ্ছে মৃত্যুর জালবুনে
উণিশ একাশি সাল থেকে
যেদিন এসেছিলে ফিরে বিদেশ বিভূয়ে থেকে
হিমালয়সম ব্যাথা শোক দু:খ বুকে নিয়ে
সেই থেকে পদে পদে
কখনো বন্দুকের গুলি কখানো বোমা
কখনো ককটেল করেছে নিশানা তাক
তোমার দিকে,
কিন্তু কোনো এক অদৃশ্য শক্তি দিয়েছে
পাহারা তোমাকে
করেছে জীবনরক্ষা একে একে বারটিবার
ভয়াল আক্রন থেকে
তোমার জীবন যে স্রষ্টার হাতে সর্মপিত
দেখেছে বিশ্ব সে সব ঘটনা বিস্ময়ে
হয়েছে অবাক হতবাক
শুধুু মাত্র একটি মানুষকে হত্যার এতো কি আয়োজন
এতো কি প্রয়োজন পশুদের
তারপর সর্বশেষ অাসে গ্রেনেড আক্রমন
অাঘাত তোমার উপর একুশে আগষ্ট দুহাজার চারে
অদ্যম্য সুপরিকল্পিত নিশ্চিত নিশানা ঠিক করে
পাঠাতে তোমাকে অনন্ত অন্তিমে
কিন্তু পারেনি ওরা, পারেনি পাশব শক্তি
সেই অলৌকীক শক্তি আর কোটি বাঙালির দোয়া
করেছিল রক্ষা সেই দিন একুশে আগষ্ট
জাতি বেঁচেছিল আরএকটি কলঙ্ক কালিমার
ইতিহাস থেকে
তুমি যে ছিলে সেদিন মানব প্রাচীরে ঘেরা
মানুষের ভালবাসার লৌহ কপাটের ভেতর
যদিও দিয়ে গেছেন আত্মাহুতি অনেকেই
শুধু জাতির জনকের কন্যার জন্যে
আমাদের পরম প্রিয় আপা দেশরত্ন
শুধু কেবল তোমারই জন্যে
এইজাতির তুমি যে একমাত্র আশ্রয় স্থল
সকল ঝড়ে প্লাবনে গকী সুনামী ঝঞ্ছায়
তুমি যে জাতির জনক কন্যা শেখ হাসিনা।

কথাশিল্পী আজিজুর রহমান আজিজ

 

সর্বশেষ সংবাদ

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.