“মোবাইল ফোন চেক করা” যেভাবে ভেঙে দিতে পারে আপনার প্রেমের সম্পর্ক!

0
8

20140128-001118.jpg

28 Jan, 2014 প্রতিটি ভালোবাসার সম্পর্কই অগাধ বিশ্বাসের ওপর ভর করে গড়ে উঠে। যে সম্পর্কে বিশ্বাস জিনিষটির অভাব আছে সে সম্পর্ক কখনোই বেশিদিন টেকে না। এমন অনেকেই আছেন যিনি সময় ও সুযোগ পেলেই সঙ্গীর ফোন নিয়ে কল লিস্ট কিংবা এসএমএস চেক করে থাকেন। অনেকে নিজের ‘ডমিনেটিং’ স্বভাবের কারনে আবার অনেকে সাধারণ ভাবেই কাজটি করেন।

কিন্তু এই কাজটি আপনার করা একদমই উচিৎ নয়। এতে হয়তো না চাইলেও আপনার গভীর সম্পর্কটি হঠাৎ করেই ভেঙে যেতে পারে। দেখে নিন কী কারনে আপনার সঙ্গীর ফোন চেক করা একদমই উচিৎ নয় আর এই অভ্যাস কী কী বিপদ ডেকে আনতে পারে আপনাদের জন্য।

বিশ্বাস ভেঙে যায়

আগেই বলেছি, প্রতিটি ভালোবাসার সম্পর্কই অগাধ বিশ্বাসের ওপর ভর করে গড়ে উঠে। হয়তো আপনি সাধারণভাবেই কাজটি করেছেন কিন্তু আপনার সঙ্গীর মনে হতে পারে আপনি তাকে বিশ্বাস করেন না। এতে করে দুজনের মধ্যে দূরত্ব সৃষ্টি হয়।

অযথা ভুল বোঝাবোঝির সৃষ্টি হয়

মাঝে মাঝে হয়তো সন্দেহজনক অনেক কিছুই পাওয়া যায় সঙ্গীর ফোনে। কিন্তু আপনাকে আগে পুরো সত্য জানতে হবে। আপনি কিছু দেখে নিজের মত ভেবে সন্দেহ করে ঝগড়া শুরু করলে হবে না। কারণ সব সময় যা দেখা হয় তাই সত্যি হয়ে যায় না। হয়তো এর পেছনে কিছু সত্য লুকোনো থাকে। কিন্তু ফোনে দেখা কিছু অর্ধ সত্য অযথা ভুল বোঝাবোঝির সৃষ্টি করে। তাই সঙ্গীর ফোন না দেখাই ভালো।

সঙ্গীর মনে আপনার প্রতি বিরূপ ধারনার সৃষ্টি হয়

যদি আপনি আপনার সঙ্গীর ফোন চেক করেন তবে আপনার সঙ্গীর আপনার প্রতি বিরূপ ধারনার জন্ম হয়। আপনার এই স্বভাবের কারনে হয়তো আপনি আপনার প্রিয় মানুষটির কাছে একজন বিরক্তিকর মানুষ হিসেবে পরিচিতি পাচ্ছেন। তাই সঙ্গীর ফোন চেক করা বন্ধ করুন।

নিজের মনে সন্দেহ প্রবণতা বাড়ে

আপনি আপনার সঙ্গীর ফোন চেক করে সামান্য কিছুতেই হয়তো বেশি সন্দেহ করা শুরু করেন। এর প্রভাব পরে আপনার মনের ওপর। ফলে আগে যে জিনিষ গুলোয় বা কাজে আপনার সন্দেহ জাগতো না হঠাৎই সঙ্গীর সেই সব কাজে আপনি সন্দেহ করা শুরু করে দেবেন। হয়তো ব্যাপারটি আসলেই কিছু নয়। কিন্তু আপনি মানসিক দিক থেকে বেশি মাত্রায় সন্দেহ প্রবন হয়ে যাওয়ার ফলে এই ধরনের আচরন করতে পারেন। তাই অযথা সম্পর্কে সন্দেহ না ঢোকানোর জন্য সঙ্গীর ফোন থেকে দূরে থাকুন।

সঙ্গীর মনে অপরাধ ও প্রতারণার প্রবণতা জেগে উঠে

ভালোবাসার মানুষটি হয়তো আপনার প্রতি অনেক বেশিই অনুগত। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই আপনার এই ফোন চেক করার স্বভাবের জন্য সঙ্গীর মনে এক ধরনের মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। আপনি তাকে বিশ্বাস করছেন না দেখে তিনি জেদের বসে আপনাকে প্রতারণা করার সিদ্ধান্ত নিয়েও ফেলতে পারেন। কারণ যিনি দোষী নন তার সাথে দোষীর মত আচরণ করলে রাগ হওয়াই স্বাভাবিক। সুতরাং উপযুক্ত কারন ব্যতীত সঙ্গীর ফোন চেক করতে যাবেন না।
উৎসঃ প্রিয়

20140128-001133.jpg