শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে বাধা দিলে পরিণতির দায় সরকারের: মির্জা আব্বাস

শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে বাধা দিলে পরিণতির দায় সরকারের: মির্জা আব্বাস

image

বিএনপির শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে বাধা দিলে এর পরিণতির জন্য সরকারই দায়ী থাকবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ঢাকা মহানগর কমিটির আহ্বায়ক মির্জা আব্বাস।

বুধবার বিকেলে ভাসানী মিলনায়তনে ঢাকা মহানগর বিএনপির কার্যালয়ে আয়োজিত যৌথ সভায় মির্জা আব্বাস বলেন, “আগামী দিনের আন্দোলন সংগ্রামের জন্য দেশনেত্রী আমাদের হাতে ঢাল-তলোয়ার তুলে দেননি। আমাদের আন্দোলন হবে শান্তিপূর্ণ ও গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায়। তবে এ শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে যদি পুলিশ বাধা দেয়, তবে এর দায় সরকারকেই নিতে হবে।”

এ সভাকে কেন্দ্র করে বিএনপি কার্যালয়ের আশপাশের এলাকায় মোতায়েন বিপুলসংখ্যক পুলিশের প্রসঙ্গ টেনে মির্জা আব্বাস বলেন, “এতো ছোট মিটিংয়ে আতঙ্কিত হলে সামনে তো অনেক সময় বাকি আছে। তখন কী হবে।”

মির্জা আব্বাস আওয়ামী লীগের উদ্দেশে বলেছেন, “আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই। আমরা মিছিল প্রতিবাদ করছি। তবে সব কর্মসূচি শান্তিপূর্ণ হবে। ”

বিএনপির সরকারবিরোধী আন্দোলনের ক্ষমতা নেই-আওয়ামী লীগ নেতাদের এমন বক্তব্যের জবাবে আব্বাস বলেন, “আমাদের কিছু করার না থাকলে আপনারা কেন এত প্রস্তুতি নিচ্ছেন। দয়া করে গণতন্ত্রকে গলাটিপে না ধরে তার পথে চলতে দিন। ”

এ সময় তিনি অভিযোগ করেন, আন্দোলনের ভয়ে বিএনপির ছোটখাটো সভা-সমাবেশেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করে সরকার আতঙ্ক তৈরি করছে।

ঢাকা মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব হাবিব উন নবী সোহেলের সঞ্চালনায় যৌথ সভায় আরো ছিলেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও মহানগর কমিটির উপদেষ্টা গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল আউয়াল মিন্টু, বরকতুল্লাহ বুলু, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, আবুল খায়ের ভূইয়া, এস এ খালেকসহ বিএনপির বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সভাপতি, সাধারন সম্পাদক এবং ঢাকা মহানগরের বিভিন্ন থানা কমিটির সভাপতি, সেক্রেটারি ও আহ্বায়কগণ।

রেডিও তেহরান/