সব রেকর্ড গুঁড়িয়ে দিচ্ছে ‘বাহুবালি’

সব রেকর্ড গুঁড়িয়ে দিচ্ছে ‘বাহুবালি
একই বাজেটে আসছে বাহুবালি-২

ভারতের ব্যবসাসফল ও ব্যয়বহুল সিনেমাগুলোর কথা উঠলেই সামনে চলে আসে বলিউড অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন, হৃত্বিক রোশন কিংবা খান ত্রয়ীর কথা। অথচ এস এস রাজামৌলি পরিচালিত ‘বাহুবালি’ তেলেগু সিনেমাতে এদের কেউ নেই। তাতে কী, ভারতের ইতিহাসে সবচেয়ে ব্যয়বহুল এই সিনেমাটি মুক্তির দিন থেকে দেশটির সিনেমা জগতের সকল রেকর্ড গুড়িয়ে দিয়ে নুতন ইতিহাস তৈরি করে চলেছে।

‘বাহুবালি’ মুক্তির সঙ্গে সঙ্গেই শাহরুখ খানের ৪৪ কোটি রুপির উদ্বোধনী আয়কে পেছনে ফেলে সিনেমাটি প্রথম দিনেই আয় করেছে ৫০ কোটি রুপি। যার ফলে ভারতে সর্বাধিক উদ্বোধনী আয়ের সিনেমা এখন এই তেলেগু সিনেমাটি। ‘বাহুবালি’ অবশ্য মুক্তির অনেক আগে থেকেই আলোচনায় ছিল বাজেটের কারণে। বলা হচ্ছে ভারতের সর্বকালের সবচেয়ে ব্যয়বহুল সিনেমা এটি।

যদিও অভিযোগ আছে, ২শ ৫০ কোটি অর্থ ব্যয়ে নির্মিত বাহুবালি সিনেমাটি দৃশ্যধারণ করা হয়েছে ৫ ঘণ্টার। এরমধ্যে কেবল আড়াই ঘণ্টার ‘বাহুবালি’ সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছে। কেউ কেউ বলছেন, বাকি আড়াই ঘণ্টা বাহুবালি-২ নামে আগামী বছর মুক্তি পাবে।

এতে অভিনয় করেছেন- প্রাভাস, রানা ডাগ্গুবাতি, তামান্না ভাটিয়া, আনুশকা শেঠি এবং রাম্ভার মতো তেলেগু সুপারস্টাররা। ফলে ‘বাহুবালি’ নিয়ে আগ্রহের কমতি ছিল না দর্শকদের মধ্যে।

বাণিজ্য বিশ্লেষক তারান আদার্শ জানান, ‘বাহুবালি’ ইতিহাস গড়েছে। সব সংস্করণেই সর্বকালের সর্বোচ্চ আয়ের রেকর্ড গড়েছে ৫০ কোটি রুপি নিয়ে। অলৌকিক, অসাধারণ।”

সিনেমাটির হিন্দি সংস্করণ প্রথম দিনে আয় করেছে ৫ কোটি ১৫ লাখ রুপি। তারান আদার্শের দেওয়া তথ্য অনুসারে অন্য ভাষা থেকে হিন্দিতে রূপায়িত সিনেমাগুলোর মধ্যেও এটিই সর্বোচ্চ আয়।

শুক্রবার বিশ্বব্যাপী ৪ হাজার হলে মুক্তি পায় পিরিয়ড ড্রামা ঘরানার সিনেমাটি। বিশাল বাজেটের এই সিনেমাটি নির্মিত হয়েছে প্রাচীনকালের এক রাজ্যের ক্ষমতা দখলে দুই ভাইয়ের লড়াইয়ের গল্প নিয়ে।

এদিকে, মুক্তির দিন ৫০ কোটি রুপি আয় করে ভারতের সর্বোচ্চ উদ্বোধনী আয়ের রেকর্ড গড়া সিনেমাটিকে অনেকেই তুলনা করেছেন জ্যাক স্নাইডারের পরিচালিত হলিউডি সিনেমা ‘থ্রি হান্ড্রেড’-এর সঙ্গে। এখন দেখা যাচ্ছে, দর্শকদের মতে ‘থ্রি হান্ড্রেড’-এর চেয়েও ভাল এস এস রাজামৌলির এই তেলেগু সিনেমা। অন্তত সিনেমাটির আইএমডিবি রেটিং বলছে সে কথাই।

ইন্টারন্যাশনাল মুভি ডাটাবেইজ, সংক্ষেপে আইএমডিবির ওয়েবসাইটে যে কোনো সিনেমার প্রোফাইলে দর্শকরা তাদের পছন্দ অনুযায়ী রেটিং দিতে পারেন। ১০ এর ভেতর রেটিং ৭ এর উপরে উঠলেই সিনেমাটিকে গ্রহণযোগ্য হিসেবে ধরা হয়। ২০০৬ সালের মার্কিন অ্যাকশন পিরিয়ড ড্রামা ‘থ্রি হান্ড্রেড’-এর রেটিং ৭ দশমিক আট। সেখানে শুক্রবার মুক্তি পাওয়া ভারতীয় পিরিয়ড ড্রামা ‘বাহুবালি’র বর্তমান রেটিং সাড়ে নয়।

বিডি-প্রতিদিন/১৩ জুলাই, ২০১৫