আমেরিকা ও কানাডার ৫৫ সংগঠনের অংশগ্রহণে নিউইয়র্কে ৩দিনের ফোবানা সম্মেলন শুক্রবার থেকে

0
13

image

আমেরিকা  ও কানাডার ৫৫ সংগঠনের অংশগ্রহণে নিউইয়র্কে ৩দিনের ফোবানা সম্মেলন শুক্রবার থেকে: খবর.কম
নিউইয়র্ক: দেশ ও প্রবাসের ১৩৫ শিল্পীর অংশগ্রহণে ‘ফিরে চল মাটির টানে’ শীর্ষক সঙ্গীতানুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে নিউইয়র্কে ফোবানার  (ফেডারেশন অব বাংলাদেশী এসোসিয়েশন্স ইন নর্থ আমেরিকা) ৩দিনের বাংলাদেশ সম্মেলন শুরু হবে ৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সন্ধ্যায়। বিষয়ভিত্তিক ১৫টি সেমিনার ছাড়াও এতে থাকবে দেশ ও প্রবাসের গুণিজন এবং উত্তর আমেরিকায় জন্মগ্রহণকারীদের মধ্যে সেরার চেয়েও সেরাদের এওয়ার্ড প্রদান। খবর এনআরবি।

সুদূর এই পরবাসে বড় হওয়া বাংলাদেশী প্রজন্মের মধ্যে নেটওয়ার্কিংয়ের চমৎকার ও ব্যতিক্রমধর্মী একটি পর্বও রয়েছে, যা ইতিমধ্যেই অভিভাবকদেরও দৃষ্টি কেড়েছে। ৩১ আগস্ট সোমবার সন্ধ্যায় ফোবানার ২৯তম বাংলাদেশ সম্মেলনের সর্বশেষ প্রস্তুতির আলোকে অনুষ্ঠিত ‘মিট দ্য প্রেস’-এ এসব তথ্য প্রকাশ করা হয়।
সম্মেলনের হোস্ট সংগঠন হচ্ছে ‘বাংলাদেশ লীগ অব আমেরিকা’ এবং আয়োজক কমিটির কনভেনর হচ্ছেন বেদারুল ইসলাম বাবলা। তারই সভাপতিত্বে ‘মিট দ্য প্রেস’-এ বিস্তারিত তথ্য উপস্থাপন করেন হোস্ট কমিটির সদস্য-সচিব জাকারিয়া চৌধুরী। এ সময় মঞ্চে আরো উপবেশন করেন হোস্ট কমিটির প্রধান সমন্বয়কারি আব্দুল চৌধুরী শাহীন, সিনিয়র নির্বাহী কো-কনভেনর এন আমিন, নির্বাহী কো-কনভেনর আব্দুল হাই জিয়া, কো-কনভেনর আব্দুল কাদের মিয়া, স্পন্সর আনোয়ার হোসেন, মিডিয়া সম্পর্কিত চেয়ারপার্সন আকবর হায়দার কিরণ, কালচারাল কমিটির চেয়ারপার্সন শারমিন রেজা ইভা এবং উৎসব ডটকমের মার্কেটিং বিষয়ক ম্যানেজার কামাল হোসেন মিঠু।

এ সময় আরো জানানো হয় যে. এবারের সম্মেলনের প্রধান অতিথি হচ্ছেন সিলেটের সন্তান এবং দীর্ঘদিন যাবত লসএঞ্জেলেসে বসবাসকারি প্রখ্যাত সমাজসেবক ডা. কালিপদ রায়। সম্মানীত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখবেন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার এশিয়ান-আমেরিকান ও প্যাসিফিক আইল্যান্ডার্স সম্পর্কিত উপদেষ্টা ড. নীনা আহমেদ, মার্কিন কংগ্রেসে ফরেন এফেয়ার্স কমিটির প্রভাবশালী সদস্যা কংগ্রেসওম্যান গ্রেস মেং, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব:) হেলাল মোর্শেদ খান বীর বিক্রম, আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থার প্রধান আব্দুল হান্নান খান, এনআরবি ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান নিজাম চৌধুরী, দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজাম, ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত প্রমুখ।
সেমিনারের জন্যে নির্দ্ধারিত মিলনায়তনের নাম হচ্ছে দোলনচাঁপা এবং মাধবিলতা। এবারের সম্মেলনের শ্লোগান হচ্ছে ‘হৃদয়ে আকাশ-প্রকাশে বাঙালি।’ এ উপলক্ষে প্রকাশিতব্য স্মরণিকার নাম হচ্ছে ‘চিরকালের বাংলা।’ বাংলাদেশ, বাঙালি এবং প্রবাসের প্রজন্মকে প্রাধান্য দেয়ার এ সম্মেলনে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কিত সেমিনারের পাশাপাশি মূলধারার রাজনীতিতে বাংলাদেশীদের অবস্থান নিয়েও খোলামেলা আলোচনা হবে। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আরো জানানো হয়, আড়াই লাখ ডলার বাজেটের এ সম্মেলনে কানাডা ও যুক্তরাষ্ট্রের ৫৫টি সংগঠন আসবে। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করবে ১৭টি সংগঠন। অতিথি শিল্পীর মধ্যে রয়েছেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের প্রখ্যাত শিল্পী রথীন্দ্রনাথ রায় এবং শহীদ হাসান, এ প্রজন্মের হাবিব ওয়াহিদ এবং তার বাবা ফেরদৌস ওয়াহিদ, শুভ্রদেব, রবী চৌধুরী, ইমরান, ভারতের শিল্পী মিতালি মুখার্জি, প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পী তাজুল ইমাম, শিখা রৌফ, চিত্রনায়ক  আরিফিন শুভ এবং তার দল।

সেমিনারসমূহে স্ব স্ব বিষয়ে অভিজ্ঞতাসম্পন্নরাই অংশ নেবেন বলে আয়োজকরা উল্লেখ করেন। অর্থাৎ প্রবাসের মেধাবিরা এবারের সম্মেলনে গুরুত্বপূর্ণ ভ’মিকা রাখবেন। কম্যুনিটি বৃদ্ধি পাবার সাথে সাথে ভবিষ্যতে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় কী পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত-তা নিয়েও অনুষ্ঠিত হবে মুক্ত আলোচনা।
এ সময় জানানো হয় যে, মূলমঞ্চের অনুষ্ঠান দেখতে টিকিট লাগলেও বিষয়ভিত্তিক সেমিনার এবং কেনাকাটার স্টলে প্রবেশ করতে কোন টিকিট লাগবে না। এমনকি খাবার-দাবারের স্টলও থাকবে মুক্ত এলাকায়। খাদ্য ও পণ্যের বেশ কটি স্টল থাকবে বলে জানানো হয়। আয়োজকরা জোর দিয়ে জানান যে, এবারের সম্মেলনে সবকিছুই হবে একটু ভিন্ন প্রকৃতির। পুরো অনুষ্ঠান উপস্থাপিত হবে বাংলা ও ইংরেজীতে। ২৯ বছরের ফোবানার ইতিহাসে এটি হবে নতুন এবং নতুন প্রজন্মকে আরো বেশী সম্পৃক্ত করার অভিপ্রায়ে এ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। মার্কিন টিভির সাংবাদিকরা উপস্থাপনা ছাড়াও সেমিনারে বক্তব্য রাখবেন।