‘পুনর্নির্বাচিত হলে ইন্টারনেটের দাম আরো কমাবো’

0
13

‘পুনর্নির্বাচিত হলে ইন্টারনেটের দাম আরো কমাবো’


‘পুনর্নির্বাচিত হলে ইন্টারনেটের দাম আরো কমাবো’
সজীব ওয়াজেদ জয়

ঢাকা: বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারকে পুনর্নির্বাচিত করা হলে থ্রিজি এবং ফোরজি’র জন্য ইন্টারনেটের দাম আরো কমানোসহ দেশকে পুরোপুরি ডিজিটাল করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা এবং তনয় সজীব ওয়াজেদ জয়।

শুক্রবার রাত দশটার কিছু আগে তার ফেসবুক পেজে এক পোস্টের মাধ্যমে এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি ইন্টারনেটের দাম কমানো প্রসঙ্গে বলেন, ‘বাংলাদেশে ইন্টারনেট সংযোগের দাম নিয়ে আমি অনেক অনুরোধ পেয়েছি। আমাদের সরকার আসার পর থেকেই এ বিষয়টিতে আমরা মনোযোগ দিয়েছি। আর এ নিয়ে আমার ভবিষ্যতেও কিছু পরিকল্পনা আছে যা আওয়ামী লীগ পুননির্বাচিত হলে বাস্তবায়ন করা সম্ভব হবে।’

জয় ইন্টারনেটের দাম কমানো প্রসঙ্গে বলেন, ‘২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ যখন ক্ষমতায় আসে তখন ইন্টারনেটের প্রতি মেগাবাইটের দাম ছিল ৮০ হাজার টাকা। গত চার বছরে ওই দাম কমিয়ে আমরা ১৮ হাজারে নামিয়ে এনেছি। তবে ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো খুচরা গ্রাহকদের জন্য দাম তেমন কমায়নি। তারা ইন্টারনেটের গতি বাড়িয়েছে, কিন্তু দাম এখনো বেশি।’

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা জানিয়ে জয় ফেসবুকে স্ট্যাটাসে লিখেন, ‘থ্রিজি এবং ফোরজি’র জন্য ইন্টারনেটের দাম আরো কমানোই আমার পরিকল্পনা। ফলে দ্রুতগতির ইন্টারনেট পাওয়া সহজ হবে, বাড়বে ইন্টারনেট ব্যবহাকারীও। ব্যবহারকারী বাড়লে দামও কমবে। সেবাদাতাদের জন্য সর্বোচ্চ মূল্যও বেঁধে দেয়ার পরিকল্পনা করছি।’

ডিজিটাল দেশ বাস্তবায়নে নৌকায় ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে লিখেন, ‘আওয়ামী লীগ পুনর্নির্বাচিত না হলে এ পরিকল্পনাগুলোর কোনোটিই বাস্তবায়ন করতে পারবে না। ডিজিটাল বাংলাদেশ তৈরিতেআমরা বিস্ময়কর অগ্রগতি অর্জন করেছি, তবে এখনো অনেক কাজ বাকি। বাংলাদেশকে পুরোপুরি ডিজিটাল করতে নৌকায় ভোট দিন।’

প্রসঙ্গত, জয়ের ফেসবুক পেজ সম্প্রতি তরুণদের মধ্যে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জয়ের পেজটিকে ‘বিশেষ সম্মান’ চিহ্নিত (মার্কড) করেছে।

গত মঙ্গলবার রাতে ‘সজীব ওয়াজেদ’ নামের পেজটিকে অফিসিয়ালি চিহ্নিত করেছে  ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। ফলে এখন থেকে সজীব ওয়াজেদ এর পেজ এ তার নামের ঠিক ডানপাশে একটি রাইট মার্ক (টিক চিহ্ন) দেখতে পাওয়া যাবে।

বাংলাদেশে প্রথম কোনো নাগরিকের ক্ষেত্রে ভেরিফিকেশনের মাধ্যমে এ সম্মাননার স্বীকৃতি দিয়েছেফেসবুক।
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম