ফুটবল বাঁচানোর আন্দোলনে এক হচ্ছেন সাবেকরা

ফুটবল বাঁচানোর আন্দোলনে এক হচ্ছেন সাবেকরা


রফিকুল ইসলাম, বিশেষ সংবাদদাতা

ফুটবল বাঁচানোর আন্দোলনে এক হচ্ছেন সাবেকরা

ফুটবলের নেতৃত্ব এখন ফুটবলারদের হাতেই। কাজী মো. সালাউদ্দিনের নেতৃত্বে সালাম মুর্শেদী, বাদল রায়সহ এক ঝাঁক সাবেক তারকা ফুটবলার যখন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) নির্বাহী কমিটিতে আসলেন তখন স্বপ্নের পরিধিটাও তরতর করে বড় হয়েছিল ফুটবলপ্রেমীদের।

দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা ফুটবল ফিরে পাবে তার হারানো গৌরব- এমন আশায় বুক বেঁধেছিল ফুটবলপ্রিয় মানুষ। বাস্তবে সে আশায় গুড়েবালি। ফুটবল গড়াচ্ছে পেছনে। ফিফা র‌্যাংকিংয়ে নিয়মিত অবনমন। ২০০তে নামতে আর মাত্র ১২ ধাপ বাকি। বাংলাদেশ এখন ইতিহাসের সবচেয়ে তলানিতে, ১৮৮ নম্বরে!

এক সময় খেলার দাবিতে আন্দোলন করতে হতো ফুটবলারদের। এখন ফুটবলাররা ভালোই আছেন। প্রতি মৌসুমে ক্লাবের সঙ্গে মোটা অঙ্কের চুক্তি। মাঠে পারফরম্যান্স যাই থাক, দলবদলের সময় তাদের পেছনেই টাকার বস্তা নিয়ে দৌড়ান ক্লাব কর্মকর্তারা। নতুন নতুন ফুটবলার তৈরি না হওয়ার কারণেই হাতেগোনা কিছু ফুটবলার হচ্ছেন অতি মূল্যায়িত।

প্রশ্ন হচ্ছে ফুটবলার তৈরি করবে কে? এ নিয়ে সব সময়ই ক্লাবগুলোর দিকে বল ঠেলে দেন বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন। প্রতিভা খোঁজার প্রশ্ন উঠলেই তার মুখে ভাঙ্গা রেকর্ড, ‘ফুটবলার তৈরি ফেডারেশনের কাজ নয়।’

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপট ভুলে তিনি সামনে আনেন ইউরোপ আর দক্ষিণ আমেরিকার উদাহরণ। অথচ তিনি তাকান না দক্ষিণ এশিয়ার দেশ নেপাল, ভুটান আর মালদ্বীপের দিকে। যে দেশগুলোর ফেডারেশন একাডেমির মাধ্যমে তৈরি করছে নতুন নতুন ফুটবলার। এই তো গত ১০ অক্টোবর প্রথমবারের মতো বাংলাদেশকে হারিয়ে ভুটান চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে, তারা বাংলাদেশের চেয়ে কতটা এগিয়ে!

ভুটানের কাছে হারটা কেউই মেনে নিতে পারছে না। যে দেশটির জাতীয় দল বাংলাদেশের কোনো একটি ক্লাবের কাছেও হালি হালি গোল খেতো, সেই ভুটান এখন বাংলাদেশকেই হারিয়ে দেয়; কিন্তু ভুটানের গোল খেয়েও ঘুম কাটেনি বাফুফে কর্মকর্তাদের।

প্রায় এক ডজন ফুটবলার আছেন যে কমিটিতে, সেই বাফুফের বিরুদ্ধেই এখন মাঠে নামতে হচ্ছে অন্য সাবেকদের। সবার এক কথা, ফুটবল বাঁচাতে হবে। ফুটবলারদের হাতেই এখন দেশের ফুটবল অনিরাপদ!

ফুটবল বাঁচানোর আন্দোলন শুরু হয়েছে ভুটানের কাছে হারের পর থেকেই। সমর্থকরা বাফুফে ভবনের সামনে এসে বিক্ষোভ করেছে। সাবেকরা বিবৃতি দিয়েছেন। মিডিয়ায় চলছে নিয়মিত সমালোচনা।

এবার সাবেক ফুটবলাররা এক হচ্ছেন ফুটবল বাঁচানোর আন্দোলনে। জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক আমিনুল হকের ডাকে আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) ফুটবলাররা এক হবেন ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে।

সেখানে তারা সংবাদ সম্মেলন করে ফুটবলের করুণ অবস্থা থেকে উত্তরণ নিয়ে কথা বলবেন। সেখানে উঠতে পারে ফুটবলকে ধ্বংসের পথে নিয়ে যাওয়া কাজী মো. সালাউদ্দিনের নেতৃত্বাধীন বাফুফের বর্তমান নির্বাহী কমিটির পদত্যাগের দাবিও, যা আগেই উঠেছে বিচ্ছিন্নভাবে। এবার হয়তো সমস্বরে উচ্চারিত হবে- ‘এক দফা, এক দাবি…।’