লস এঞ্জেলেসে লোটাস ফেস্টিভ্যালের প্রস্তুতি এগিয়ে চলেছে দুর্বার গতিতে

লস এঞ্জেলেস-এ লোটাস ফেস্টিভ্যাল-এর প্রস্তুতি এগিয়ে চলেছে দুর্বার গতিতেঃ

একুশ রিপোর্টঃ লস এঞ্জেলেস সিটি কর্তৃক আয়োজিত লোটাস ফেস্টিভ্যালের প্রস্তুতি এগিয়ে চলেছে দ্রুত গতিতে। এবারের থীম কান্ট্রি হিসাবে বাংলাদেশকে বিশ্বের কাছে যথাযথভাবে উপস্থাপনের জন্য গ্রহণ করা হয়েছে ব্যাপক কর্মসূচী। তার মধ্যে রয়েছে ঢাকা থেকে আমন্ত্রণ করে আনা হচ্ছে বাংলাদেশের নৃত্যের দুই দিকপাল নৃত্যশিল্পী শামীম আরা নীপা ও শিবলী মোহাম্মদকে। আগামী ১৫-১৬ জুলাই লস এঞ্জেলেসের প্রাণকেন্দ্র দর্শনীয় এবং মনোরম ইকো লেকের পার্কের তীর জুড়ে বসবে এশি্যা প্রশান্ত মহাসাগরীয় এই  বিশাল মেলা। লাইভ সঙ্গীত,
চলচ্চিত্রের স্ক্রীনিং, ঐতিহ্যগত সাংস্কৃতিক পারফরমেন্স, আর্ট ও ক্র্যাফট, মার্শাল আর্টের প্রদর্শনী, হ্রদে রঙিন ড্রাগন বোট রেস এবং আরও অনেক কিছুর সমন্বয়ে এশিয়ান প্যাসিফিক অঞ্চলের সাথে মূল প্রবাহের  সংযুক্ত করার এই উদ্যোগ চলে আসছে গত ৩৬ বছর ধরে।  

Lotus Festival Los Angeles

উৎসবস্থলে এবারের উদ্বোধনী দিন ১৫ জুলাই সকাল  ১১ টায় শুরু হবে বাংলাদেশের রঙ-বেরঙের জাতীয় ঐতিহ্যগত পোশাকে সজ্জিত হয়ে ব্যানার ফেস্টুন ও নানা জাতীয় প্রতীকে সজ্জিত হয়ে প্রায় দুই শতাধিক নারী-পুরুষ, তরুণ-তরুণী, কিশোর-কিশোরী ও শিশুদের সমন্বয়ে এক শোভাযাত্রা। এ উপলক্ষে বাংলাদেশের ঐতিহ্যগত পালকি, রিক্সা, জাতীয় ফুল, পাখি, পশু, জাতীয় স্মৃতিসৌধ, শহীদ মিনার সহ অজস্র প্রতীক তৈরী করা হয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশ কনস্যুলেট কর্তৃক উৎসবস্থলে একটি প্যাভিলিয়ন স্থাপন করা হবে। সেখানে উপস্থিত দর্শকদের প্রদর্শনীর জন্য বাংলাদেশের হস্ত ও কুটির শিল্প সহ ঐতিহ্যবাহী বিষয়াদির উপস্থাপনাও থাকবে। 

লোটাস ফেষ্টিভ্যালে লস এঞ্জেলেস সিটিতে বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করছেন মোহাম্মদ আহসান বাচ্চু।

গত শনিবার ২৪ জুন সন্ধ্যায় লিটল বাংলাদেশের আলাদীন রেস্টুরেন্টে অনুষ্ঠিতব্য চাঁদ রাতের প্রস্তুতি সভায় বাফলার প্রেসিডেন্ট বিশিষ্ট কম্যুনিটি সংগঠক ডাঃ আবুল হাশেম উপস্থিত কম্যুনিটির সকল নেতা কর্মীদের প্রতি সর্বাত্মক সহযোগিতার আহ্ববান জানান।  সেখানে উপস্থিত বিশিষ্ট কম্যুনিটি লীডার মমিনুল হক বাচ্চু এই আয়োজনকে সাফল্যমণ্ডিত করার জন্য সবরকম সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে বলেন, লোটাস ফেস্টিভ্যালে আয়োজনের দায়িত্ব পাওয়া লস এঞ্জেলেসে বাংলাদেশ কম্যুনিটির গুরুত্ব বাড়িয়ে দিয়েছে। এটা সফল করার মধ্যদিয়ে বাংলাদেশের সুন্দর ভাবমুর্তি গড়ে উঠবে। তাই এই উৎসবে বাংলাদেশিদের সমাগম বাড়ানর জন্য ব্যাপক প্রচারণার প্রতি গুরুত্বারোপ করেন। একুশে নিউজ মিডিয়ার জাহান হাসান বলেন, লোটাস ফেস্টিভ্যালে বাংলাদেশের সামগ্রিক সফলতার মধ্য দিয়ে লস এঞ্জেলেস সিটির মেইন ষ্ট্রীম রাজনীতিতে বাংলাদেশি কম্যুনিটির ঘনিষ্ঠতা ও গ্রহণযোগ্যতা আরও অনেকগুন বেড়ে যাবে। Eco Park Lake, 751 Echo Park Lake Ave., Los Angeles, CA 90026, USA. 

ফেইসবুকে এই লিংকে আপনার পরিবার বন্ধুদের আমন্ত্রন ক্রুনঃ
https://www.facebook.com/events/385996098433003/
লিটল বাংলাদেশে লোটাস ফেষ্টিভ্যাল নিয়ে আলোচনা (ভিডিও)
[youtube=https://www.youtube.com/watch?v=yPNQ5f0VLds]

সিটি অব লস এঞ্জেলেস এর রিক্রিয়েশন এন্ড পার্ক ডিপার্টমেন্টের উদ্যোগে এশি্যা ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের মানুষের প্রতি সম্প্রীতি ও সৌহার্দের নিদর্শন স্বরূপ প্রতি বছর পদ্ম ফুল ফোটার মওসুমের শুরুতে লস এঞ্জেলেস সিটির প্রাণকেন্দ্রে ইকো পার্কে লোটাস ফেস্টিভ্যাল আয়োজিত হয়ে থাকে। এশিয় প্রশান্ত মহাসাগরিয় অঞ্চলে লোটাস অত্যন্ত মর্যাদাবান ফুল হিসাবে পরিচিত। এইসব অঞ্চলের দেশে দেশে পূনর্জন্ম, বিশুদ্ধতা ও জীবনের প্রতীক হিসাবে লোটাস পবিত্র ফুল হিসাবে গণ্য হয়। গত সাঁইত্রিশ বছর ধরে আয়োজিত চল্লিশটিরও বেশী দেশের শতাধিক জাতিগোষ্টির হাজার হাজার লোকের সমাগমে আয়োজিত এই লোটাস ফেস্টিভ্যাল ইতিমধ্যে লস এঞ্জেলেস এর একটা বৃহত্তম উৎসব হিসাবে পরিচিতি লাভ করেছে।
লস এঞ্জেলেসের রাস্তায় রাস্তায় শোভা পাচ্ছে বাংলাদেশের নামঃ
[youtube=https://youtu.be/unY34SxfZqA]

লোটাস ফেস্টিভ্যালের নিয়মানুযায়ী প্রতি বছর এশিয় প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের কোনও না কোনও দেশকে থীম কান্ট্রি হিসাবে ঘোষণা করা হয় এবং তাদেরকে আয়োজনের দায়িত্ব প্রদান করা হয়। সে অনুযায়ী এবছর থীম কান্ট্রি হিসাবে বাংলাদেশের নাম ঘোষণা করা হয়েছে এবং বাংলাদেশকে উৎসবের উদ্বোধন সহ গুরুত্বপূর্ন অংশের আয়োজনের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। লস এঞ্জেলেস প্রবাসী বাংলাদেশিদের পক্ষে বাংলাদেশ ইউনিটি ফেডারেশন অব লস এঞ্জেলেস (বাফলা)’র কে নির্বাচিত করা হয়েছে সেই দায়িত্ব পালনের জন্য। তাই এ বছর কমিউনিটিতে সাজ সাজ রব পড়েছে।