ফেসবুকে নেই প্রধানমন্ত্রী, শেখ রেহানা, সায়মা ওয়াজেদ পুতুল

ফেসবুকে নেই প্রধানমন্ত্রী, শেখ রেহানা, সায়মা ওয়াজেদ পুতুলঃ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হিসেবে ফেসবুক ও টুইটার অত্যন্ত জনপ্রিয়। অনেক দেশের প্রধান এবং গুরুত্বপূর্ণ মানুষেরা ফেসবুক-টুইটারে তাদের মতামত প্রকাশ করেন। যেমন ডোনাল্ড ট্রাম্পের কথাই ধরা যাক। মন্ত্রীপরিষদে কাউকে বাতিল করলে উনি সবার প্রথমে তা টুইটারে জানান।

তবে বাংলাদেশের ক্ষেত্রেও প্রধানমন্ত্রী এবং গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গের ফেসবুক টুইটার নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে। অনেকেই মনে করেন তাঁরা ফেসবুকে একটিভ।

তবে ঘটনা সত্য নয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিশেষ করে ফেসবুক বা টুইটারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অথবা বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ রেহানা বা প্রধানমন্ত্রী কন্যা সায়মা হোসেন পুতুলের কোন ব্যক্তিগত অথবা দলীয় আইডি নেই। তাদের নামে বিভিন্ন ভুয়া আইডি খুলে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে বলে দাবি করে সকলকে সতর্ক করলো আওয়ামীলীগ।

গত ১৮ আগস্ট দলটির দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

এ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরিবারের সদস্যদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের একটি ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ, (www.facebook.com/sajeeb.a.wazed) ও একটি ভেরিফাইড টুইটার আইডি (www.twitter.com/sajeebwazed)

এছাড়াও আরো একজনের সোশ্যাল মিডিয়ায় আইডি রয়েছে। তিনি হলেন, বঙ্গবন্ধুর আরেক দৌহিত্র রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক। তার একটি ফেসবুক আইডি রয়েছে। (www.facebook.com/radwan.siddiq) চালু আছে।

ফেসবুকের কাছে মিথ্যা তথ্য দিয়ে এরই মধ্যে সায়মা হোসেনের নামে একটি আইডি ভেরিফাই করার চেষ্টা করা হয়েছে, যা এখন ব্লক করে রেখেছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা এবং প্রধানমন্ত্রী কন্যা সায়মা হোসেনের নামে যেসব আইডি বা পেজ আছে তাদের কোনো অনুমোদন নেই।

ভবিষ্যতে বঙ্গবন্ধু পরিবারের কোনো সদস্য যদি কোনো আইডি বা পেজ খোলেন, তাহলে তা গণমাধ্যমে জানানো হবে বলেও সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।