নির্বাচনী কর্মকান্ডে অংশ গ্রহন করতে ইচ্ছুক প্রবাসীদের যোগাযোগের আহ্বান ও ধন্যবাদজ্ঞাপন

তিনবারের সফল প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের ৭৩তম সাধারন পরিষদের অধিবেশনে যোগদান শেষে স্বদেশের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছেন। সফরকালীন সময়ে যাদের সহযোগিতা এবং সমর্থন আমরা পেয়েছি তাদের সবাইকে আমাদের হৃদয় নিংড়ানো ধন্যবাদ।

আমরা বিশেষ ভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি তাদেরকে যে সমস্ত সহযোগী এবং অংগ সংগঠনের নেতাকর্মীরা বিভিন্ন স্টেট থেকে কস্টকরে নিজস্ব অর্থ ব্যয় করে নিউইয়র্কে এসেছেন। আপনাদের উপস্হিতি আমাদের নেত্রীর হাতকে করেছে আরো শক্তিশালী এবং উনি অত্যন্ত খুশী হয়েছেন। এবারের নেতাকর্মীদের ব্যপক এবং স্বত:স্ফূর্ত উপস্হিতি অতীতের সকল রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে যেটি জাতীয় নির্বাচনের পূর্বে ভীষণ প্রয়োজন ছিল।

অত্যন্ত ব্যস্ত কর্মসূচীর জন্য নেতাকর্মীদের সাথে সে ভাবে দেখা সাক্ষাত না হওয়াতে মাননীয় নেত্রী অত্যন্ত দু:খ প্রকাশ করেছেন। নেত্রী বলেছেন করুনাময়ের ইচ্ছায় যদি আগামী বছর আবার জাতিসংঘের অধিবেশনে আসেন তখন অবশ্যই সকল নেতাকর্মীদের সাথে সাক্ষাত করবেন যেখানে উনি অবস্হান করবেন। উনি উনার উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন যখন জানতে পেরেছেন হোটেল কর্তৃপক্ষ নেতাকর্মীদের যথেষ্ট হয়রানী করেছে। 

গত ২৩শে সেপ্টেম্বর গনসংবর্ধনায় নেত্রীর সংগে আলাপের পরিপ্রেক্ষিতে উনার ইচ্ছে অনুযায়ী আমরা তালিকা তৈরী করছি যারা আগামী জাতীয় নির্বাচনে স্বদেশে গিয়ে এবং এখান থেকে নির্বাচনী কর্মকান্ডে অংশ গ্রহন করতে ইচ্ছুক। যারা বাংলাদেশে গিয়ে নির্বাচনী কর্মকান্ডে অংশ নিতে চান তাদের প্রতি অনুরোধ আপনারা আপনাদের নাম এবং সম্ভাব্য যাওয়ার তারিখ ৩১শে অক্টোবরের পূর্বে আমাদেরকে অবহিত করুন। 

তালিকাটি মাননীয় নেত্রীর কাছে প্রদান করা হবে উনার অবগতির জন্য।

আপনাদের সকলের সর্বোচ্চ সহযোগিতা এবং সমর্থন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগ সব সময় কামনা করে। 

জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু।

ড.সিদ্দিকুর রহমান | সভাপতি

আব্দুস সামাদ আজাদ | ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক | যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগ ।