অটোমোবাইল খাতের খুচড়া যন্ত্রাংশের আমদানি একবছর শুল্কমুক্ত করার দাবী বামা নেতাদের

চলতি অর্থবছরে অটোমোবাইল খাতের সব ধরনের খুচড়া যন্ত্রাংশের আমদানি শুল্কমুক্ত করার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ অটোমোবাইলস এসেম্বলার্স এন্ড ম্যানুফ্যাকচারার্স এসোসিয়েশন-বামার নেতারা।

মঙ্গলবার (২৩ জুন)অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে বামার সভাপতি আবদুল মাতলুব আহমাদ বলেন, কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে ডলারের সংকট তৈরী হবে এবং এ কারণে নতুন গাড়ি আমদানিতে বিঘ্ন হবে। তাই বাংলাদেশের চলমান গাড়িগুলোই যাতে আগামী দুই, তিন বছর চলতে পারে সেজন্যে খুঁচড়া যস্ত্রাংশ আমদানি সম্পূর্ণ শুল্কমুক্ত করার দাবি করেন।

মাতলুব আহমাদ আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন ২০২০ সালকে লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং বছর ঘোষণা করেছেন তখন চীন ও ভারত থেকে আসা লাইট ট্রাকগুলোকে পিক আপ বলে ভুল রেজিস্ট্রেশন করা হচ্ছে। অবিলম্বে দেশের স্বার্থে এটা বন্ধ করার দাবী জানান তিনি এবং একই সাথে বিআরটিএ কর্তৃক পিক আপের সঠিক সংজ্ঞায়নের দাবি করেন তিনি।

কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে তিনমাসে অটোমোবাইল খাতে আনুমানিক ছয় হাজার কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান বামার সাবেক সভাপতি ও রানার গ্রপের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান খান।

গ্রামীণ জনপদের পরিবহনের ক্ষেত্রে থ্রি হুইলারের গুরুত্ব তুলে ধরে তিনি এগুলোর রেজিস্ট্রেশন উন্মুক্ত করার কথা বলেন। এতে সরকার প্রতি বছর শুল্ক, কর ও ভ্যাট বাবদ ২ হাজার কোটি টাকা আয় করতে পারবে বলে জানান তিনি।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আবদুল মাতলুব আহমাদ, বাংলাদেশে শিগগিরই ইলেকট্রিক কার তৈরী করতে পরবে বলে আশা করেন । এ ব্যাপারে বিডা এখন আগের চেয়ে অনেক ইতিবাচক বলেও জানান, বামার সভাপতি আবদুল মাতলুব আহমাদ

Meet the Press- Role of Automobile Sector in Bangladesh (ইউটিউব ভিডিও)

নাগরিক টিভির কাভারেজঃ