বেদ সমপ্রদায়ের নতুন চমক জুয়েল

মারফত আফ্রিদী, মিরপুর (কুষ্টিয়া): কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলা পরিষদের অনতিদূরে রেলওয়ে স্টেশন সংলগ্ন আদিবাসী ‘বেদ সমপ্রদায়’-এর বসবাস। আর এ সমপ্রদায় কালক্রমে এখন সাংস্কৃতির কারখানায় পরিণত হয়েছে। এখানে যাযাবর এ সমপ্রদায়ের আবির্ভাব ঘটে মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে দেশ স্বাধীন হওয়ার পরপরই ১৯৭২ সালের দিকে। মূলত পাখি শিকার, বেত ও মুলি বাঁশ দিয়ে বিভিন্ন জিনিসপত্র তৈরি করে বাজারজাত করাই ছিল তাদের মূল পেশা। তবে গেল প্রায় তিন দশক ধরে সাংস্কৃতিক অঙ্গনের বিভিন্ন শাখায় এ সমপ্রদায়ের বেশির ভাগ সদস্য নিজেদের সম্পৃক্ত করে। এ সমপ্রদায়ের বাউল ভজন ক্ষ্যাপা, তবলাবাদক সুমন এবং সর্বশেষ চমক হিসেবে শ্রাবণ কুমার জুয়েল দেশের সংগীত জগতে ইতিমধ্যেই তারকা খ্যাতি অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। এর মধ্যে সুমন কুমার বেদ বর্তমানে বাংলাদেশ বেতার, ঢাকায় তবলাবাদক হিসেবে কর্মরত। কণ্ঠশিল্পী বাউল ভজন খ্যাপা ২০১৩ সালে বেসরকারি এনটিভির সংগীত প্রতিভা অন্বেষণমূলক প্রতিযোগিতা ক্লোজআপ-০১-এ সেরা ৩০ এবং শ্রাবণ কুমার জুয়েল প্রথমবারের মতো এসএ টিভিতে অনুষ্ঠিতব্য সংগীত প্রতিভা অন্বেষণমূলক ‘বাংলাদেশী আইডল’ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করা কয়েক লাখ প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে সেরা ১২-তে নিজের জায়গা করে নিয়েছেন। স্বপ্ন দেখছেন বাংলাদেশী আইডল হওয়ার। জুয়েলের ভাষায়, আমি চেষ্টা করছি আমার অবহেলিত বেদ সমপ্রদায়ের মুখে হাসি ফোটাতে। সঠিক সুযোগ এবং সমর্থনের অভাবে আমার মতো অনেকেই হারিয়ে যাচ্ছেন। ‘বাংলাদেশী আইডল’-এ অংশ না নিলে হয়তো আমিও হারিয়ে যেতাম সময়ের বিপরীতে। এখন আমি প্রাণশক্তি ফিরে পেয়েছি। আমার পরিকল্পনা ‘বাংলাদেশী আইডল’র পরিচিতি নিয়ে অবহেলিত বেদ সমপ্রদায়ের সাংস্কৃতিক কার্যক্রম আরও বেগবান করা। বেদ সমপ্রদায়ের সর্বশেষ উজ্জ্বল মুখ জুয়েল ছাড়াও কমলা রানী, রুপা, বেদানা, শাবানা, পিংকি, আলো, ময়না, মালা, নাগিনী, রিতা, কনকচাঁপা, পাতা, চন্দ্রা, শুকতারা, রূপতারা ও জবা দেশের বিভিন্ন যাত্রাপালায় অভিনয় করছেন। এর মধ্যে কণ্ঠশিল্পী বাউল ভজন খ্যাপার মা কমলা রানী (৫০) একই সঙ্গে যাত্রাপালায় নৃত্যশিল্পী, নায়িকা ও গায়িকা চরিত্রে অভিনয় করে ব্যাপক খ্যাতি অর্জন করেন। ভজনের পিতা ভক্তচন্দ্র বেদও যাত্রাদলের বিখ্যাত যন্ত্রবাদক। সংগীতবোদ্ধারা মনে করেন, সংস্কৃতিমনা এই বেদ সমপ্রদায় যথাযথ পৃষ্ঠপোষকতা পেলে এদের অনেকেই দেশের অভিনয়-নৃত্য ও লোকসংগীতের দিকপাল হয়ে উঠতেন।