পরজনমেও চালাবেন গাড়ি!

0
8

কারও মতে, এই জনমই শেষ! আবার কারও মতে, মৃত্যুর পর আরেকটি জনম আছে। দ্বিতীয়োক্তদের কেউ কেউ পরজনমে স্বর্গ বাসের আশায় পূণ্য অর্জনে সাধনা পর্যন্ত করে থাকেন। সৃষ্টিকর্তার সন্তুষ্ট লাভ করতে অনেকে অর্থ-বিত্তের দিকেও নজর দেন না।

ব্রাজিলের এক ধনকুবের দ্বিতীয়োক্তদের মতোই পরজনমে বিশ্বাসী। তবে মৃত্যুর পর সুখ-সৃমদ্ধ জীবন যাপনে করতে ইহকালের অর্থ-কড়ি আগেভাগেই ‘পরপারে পাঠিয়ে’ দিচ্ছেন তিনি!

উদ্ভট ব্যাপার হলেও সত্য, ব্রাজিলের সাও পাওলোর নিকটবর্তী জর্ডিনস শহরের বাসিন্দা কাউন্ট স্কার্পা তার অর্থ-কড়ির বিপুল অংশ পরজনমের জন্য ‘সমাহিত করেই জমিয়ে’ রাখছেন!

সেটা কিভাবে? পরজনমের জন্য তার এসব অর্থ-কড়ি রাখার পদ্ধতি আরও অদ্ভুত! মঙ্গলবার তার ফেসবুক পেজে প্রকাশিত কয়েকটি ছবিতে দেখা যায়, বাড়ির পেছনের বাগানে নিজের জন্য নির্ধারিত সমাধিস্থলের পাশেই সবচেয়ে প্রিয় ও দামি গাড়ি ‘বেন্টলে’কে সমাহিত করার জন্য গর্ত খুঁড়ছেন তিনি।

কয়েকবার কোমায় গিয়েছেন, নিশ্চিত করে বলতে পারেন না কবে তার পরজনমে যাওয়ার ডাক পড়ে! সেজন্য আগে ভাগেই ৩ লাখ ১০ হাজার পাউন্ড (প্রায় ৩ কোটি ৮৫ লাখ টাকা) মূল্যমানের নতুন ব্র্যান্ডের কালো রঙা বিলাসবহুল প্রাইভেটকারটি সমাধিস্থ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন স্কার্পা!

প্রকাশিত ছবিগুলোর সঙ্গে দেওয়া ক্ষুদে বার্তায় স্কার্পা জানিয়েছেন, এ সপ্তাহের শেষের দিকেই ‘অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া’ সম্পন্ন করে সমাহিত করবেন গাড়িটিকে!

স্কার্পার এই সিদ্ধান্তে রীতিমত হইচই পড়ে গেছে ব্রাজিলে। দেশটির বান্দেইরেন্টস টেলিভিশনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে স্কার্পা তার এই উদ্ভট সিদ্ধান্ত নেওয়ার পেছনের গল্পটি তুলে ধরে বলেন, গত রোববার মিশরের ফারাও সম্রাটদের ওপর একটি প্রামাণ্যচিত্র দেখি। আমি অবাকচিত্তে লক্ষ্য করলাম, সম্রাটরা আগ থেকে নির্ধারিত অর্থকড়ি নিয়ে সমাহিত হয়েছেন, পরজনমে সুখে বসবাস করার ‍আশায়। তাহলে আমি কেন পরজনমে ব্যবহারের জন্য প্রিয় গাড়িটিকে জমা রাখতে পারবো না?

স্কার্পার ফেসবুক পেজে প্রকাশিত একটি ছবিতে দেখা যায়, দামি গাড়িটির সামনে আরেক প্রিয় তোতাপাখি হাতে দাঁড়িয়ে আছেন তিনি। এই তোতাপাখিটিও তিনি আগেভাগেই ‘পরপারে পাঠিয়ে দেবেন’ কিনা এমন কোনো ইঙ্গিত না দিলেও স্কার্পা বলেন, যারা আমার এ সিদ্ধান্তের ব্যাপারে নাক সিঁটকাচ্ছেন, তাদের উদ্দেশ্যে গুরুত্বসহকারে বলছি, ইতোমধ্যেই আমি সমাধি খোঁড়া শুরু করেছি এবং এ সপ্তাহের শেষ দিকেই গাড়িটি সমাহিত করবো!

মঙ্গলবার স্কার্পার ব্যক্তিগত ফেসবুক পেজে প্রকাশিত এই ছবি ও ক্ষুদে বার্তায় সাড়ে পাঁচ হাজারেরও বেশি লাইক ও ছয় হাজারের বেশি শেয়ার পড়ে।

বাংলাদেশ সময়: ০৩২৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৩