পূজার সাজে ভিন্নতা

পূজার সাজে ভিন্নতা

রয়া মুনতাসীর |  অক্টোবর ০১, ২০১৩ |

উত্সবের আমেজে একটু ভিন্নতা আনা যায় সাজ-পোশাকে। নকশার এ আয়োজনে মডেল হয়েছেন চলচ্চিত্র অভিনয়শিল্পী অপু বিশ্বাস। সাজ: কানিজ আলমাস খান, পোশাক: রঙ, ছবি: কবির হোসেন

শারদীয় দুর্গাপূজার ষষ্ঠী থেকে দশমী। পাঁচটা দিন। সাজা যাবে ইচ্ছেমতো। পোশাকটি হতে পারে দেশি কিংবা পাশ্চাত্য ঢঙের। তবে এখানে একটু কথা আছে। সাজতে হবে আপনার স্বাচ্ছন্দ্যবোধ, রুচি ও ব্যক্তিত্বের সঙ্গে মিলিয়ে। একেক দিন একেকটি রং। পাঁচ দিন ভিন্ন ধরনের সাজ। এর মধ্যে আবার রাত-দিনের তফাতটাও মনে রাখতে হবে।

Untitled-12পূজা উৎসবের আমেজ থাকে বেশ কয়েক দিন।
ছবি: কবির হোসেনসাজার সুযোগটা তাই বেশি—আধুনিক, ঐতিহ্যবাহী, ক্ল্যাসিকাল—যেকোনোভাবে নিজেকে সাজিয়ে তোলা যাবে। ফ্যাশন ডিজাইনার বিপ্লব সাহা বলেন, ‘এখন গরমের আঁচ থাকার কারণে সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত সুতি কাপড়ের তৈরি পোশাকগুলোই বেশি পরা হবে। ষষ্ঠী, সপ্তমীতে একটু হালকা সাজ মানানসই। অষ্টমী ও নবমীর রাতের সাজটা জমকালো হয় সাধারণত। এ দুটো দিন একটু ভারী কাজ করা শাড়ি পরা যেতে পারে।’চাইলে লম্বা কাটের কামিজও পরতে পারেন। টাইটস কিংবা পালাজ্জো দিয়ে মানাবে ভালো। কিশোরীরা পাঞ্জাবি, লম্বা ধাঁচের কুর্তি, ঘের দেওয়া কামিজস্কার্ট বেছে নিতে পারে। দিনের বেলা বাঁধা চুল, হালকা সাজ ও রঙের পোশাকে আরাম পাওয়া যাবে। গাঢ় রংগুলো তুলে রাখা যেতে পারে রাতের বেলার জমকালো সাজের জন্য।মেকআপে হালকা বেসটাই প্রাধান্য পাচ্ছে। কানিজ আলমাস খান জানান, নিপাট পরিপাটি করে চুল বাঁধাটা এ মুহূর্তে স্টাইলে নেই। একটু এলোমেলো ও হালকাভাবে চুল বাঁধতে পারেন। চুল কোঁকড়া করে নিতে পারেন। ভিন্ন লুক তৈরি হয়ে যাবে। সাজের খেলা দেখাতে পারেন চোখেও। আইলাইনার ব্যবহারের চল এখন খুব একটা নেই। গাঢ় ও মোটা করে কাজল লাগাতে পারেন। চাইলে কাজলের বদলে চোখের নিচে আইশ্যাডো দিতে পারেন। মাসকারা ঘন করে দিতে হবে। না হলে চোখের সাজ ফুটে উঠবে না। লিপস্টিকে এখন লাল, মেরুন, কমলা রং জনপ্রিয়। কিশোরীরা নিয়ন রঙের নেইলপলিশ ব্যবহার করে চমকে দিতে পারে।

ছবি: কবির হোসেনগোছানো জমকালো সাজটি তুলে রাখুন নবমীর রাতের জন্য। গাঢ় নীল রঙের মসলিনের শাড়ি। পাড়ে উজ্জ্বল বিপরীত রঙের পাড় ব্যবহার করা হয়েছে।

চুলের সামনের অংশকে কোঁকড়া করে, পেছনের চুলকে সোজাই রাখতে পারেন। দুই হাতের দুই আঙুলে বড় পাথরের আংটি। গলায় ও কানে পাথরের গয়না। ঠোঁটে কমলা লিপস্টিক। চোখের আইশ্যাডোটি মেলানো হয়েছে শাড়ির পাড়ের সঙ্গে। পুরো সাজে ভিন্নতা এনেছে কাটওয়ার্কের কাজ করা ব্লাউজের হাতা।ছবি: কবির হোসেন

গাঢ় সবুজ সুতির শাড়ির সঙ্গে পিতলের হালকা গয়না। পাড়ের সঙ্গে মিলিয়ে অপু বিশ্বাস সোনালি রঙের হাতাকাটা ব্লাউজ পরেছেন। সামনের চুল একটু ফুলিয়ে এক পাশে সিঁথি করা হয়েছে। ঠোঁটে ন্যাচারাল রঙের লিপস্টিক, চোখে গাঢ় সবুজ আইশ্যাডো। ব্যস, অষ্টমীর দিন সকালে ঘোরার সাজ সম্পূর্ণ

গরদের শাড়িটা দশমীর জন্যই তুলে রাখা হয়। গতানুগতিক লাল ব্লাউজের বদলে ভিন্ন ধরনের ব্লাউজ পরতে পারেন। সামনের দিকের চুলগুলোকে পেঁচিয়ে পেছনে নিয়ে খোঁপা করা হয়েছে। কানে ও গলায় ভারী রুপার গয়না সাজে এনে দিয়েছে আভিজাত্য

সাধারণ কিন্তু আভিজাত্য, অষ্টমী রাতে সাজটা হওয়া চাই এমনই। চুলগুলোকে কোঁকড়া করে আলতোভাবে এক পাশে নিয়ে খোঁপা করা হয়েছে। ঠোঁটের লিপস্টিকের রংটি মেলানো হয়েছে শাড়ির পাড়ের রঙের সঙ্গে। চোখের ওপরে ও নিচে আইশ্যাডো লাগানো হয়েছে। কানে লম্বা পাথরের দুল
সপ্তমীর বিকেলের জন্য বেছে নিতে পারেন হলুদরঙা শাড়ি। সঙ্গে লাল লম্বা হাতার ব্লাউজ। এক প্যাঁচে শাড়ির সঙ্গে চুলগুলোকে কোঁকড়া করে ছেড়ে রেখেছেন অপু বিশ্বাস

মডেল হয়েছেন চলচ্চিত্র অভিনয়শিল্পী অপু বিশ্বাস। সাজ: কানিজ আলমাস খান, পোশাক: রঙ, ছবি: কবির হোসেনসূত্রঃ প্রথম আলো