পিপাসায় ৩৫ জনের মৃত্যু!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ঢাকা, ২৯ অক্টোবর : পানির পিপাসায় ৩৫ জন অভিবাসীর মৃত্যু হয়েছে। ইউরোপে যাওয়ার সময় নাইজারের সাহারা মরুভুমিতে প্রচণ্ড পানির পিপাসা লাগলে তাদের মৃত্যু হয়।

নাইজারের উত্তরাঞ্চলের প্রধান শহর আগাদেজের মেয়র রিসা ফেলতৌ জানান, নিহতদের মধ্যে নারী ও শিশু রয়েছে। তারা আলজেরিয়া যাওয়ার পথে ৬০ জনের একটি অভিবাসী দলের ৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

পশ্চিম আফ্রিকা থেকে ইউরোপে যাওয়া অভিবাসীদের প্রধান রুটগুলোর একটি হচ্ছে আগাদেজ। চলতি মাসে ভূমধ্যসাগর অতিক্রমের সময় নৌকা ডুবে শত শত অভিবাসী হতাহতের ঘটনা ঘটেছে।

ফেলতৌ বলেছেন, এ মাসের প্রথম দিকে আগাদেজের উত্তরের শহর আরলিত থেকে দুটি গাড়ি যাত্রা শুরু করে। গাড়ি দুটিতে ‘কমপক্ষে ৬০ জন অভিবাসী’ ছিলেন।

তিনি জানান, যারা সাহারার কেন্দ্রে আলজেরিয়ার তামানরাসেট শহরের দিকে যাচ্ছিল। একটি গাড়ি ভেঙ্গে যায়। ভেঙ্গে যাওয়া গাড়িটির যাত্রীদের রেখে অন্য গাড়িটির যাত্রীরা মরুদ্যান খুঁজতে থাকেন।

তিনি জানান, যারা জীবিত আছেন তারা কয়েকদিন পর আরলিতের একটি ইউরেনিয়াম খনি কেন্দ্রে আসেন এবং ঘটনা সেনাবাহিনীকে জানান। কিন্তু সেনাবাহিনী অনেক দেড়িতে ঘটনাস্থলে পৌঁছে।

আফ্রিকা মহাদেশের আলজেরিয়া, চাঁদ, মিশর, ইরিত্রিয়া, লিবিয়া, মালি, মৌরিতানিয়া, মরক্কো, নাইজার, সুদান, তিউনিসিয়া ও ওয়েস্টার্ন সাহারায় বিস্তৃত সাহারা মরুভূমি। সাহারা বিশ্বের সবচেয়ে উত্তপ্ত ও তৃতীয় বৃহত্তম মরুভূমি। আয়তনে চীন বা যুক্তরাষ্টের চেয়েও বড়। লোহিত সাগর থেকে শুরু করে আটলান্টিক মহাসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত মরুভূমিটি ভূমধ্যসাগরও ছুঁয়েছে।