সমঝোতায় আসুন, নইলে ৩য় শক্তি আসতে পারে :এফবিসিসিআই

চলমান রাজনৈতি সংকট দুই প্রধান দলের মধ্যে সমঝোতার মাধ্যমে সমাধানের জন্য আবারো আহ্বান জানিয়েছেন ব্যবসায়ী নেতারা। অন্যথায় তৃতীয় শক্তি ক্ষমতায় আসতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন তারা। গতকাল মঙ্গলবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে ব্যবসায়ী নেতারা বলেন, আমরা চাই রাজনৈতিক দলগুলো সমঝোতায় আসবে। কোনভাবেই তৃতীয় শক্তি চাই না। এর আগে যখন তৃতীয় শক্তি এসেছিল তখন ব্যবসায়ী ও রাজনীতিবিদরা ব্যাপকভাবে নিগৃহীত হয়েছিল।

গতকাল এক সাংবাদিক সম্মেলনে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই এমন আশঙ্কার কথা জানায়। সংগঠনের সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, সমঝোতা না হলে ‘ব্যতিক্রম’ ঘটতে পারে। এর আগে ‘এক-এগারো’ এসেছিল। তখন সবাই হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছে। সুতরাং সেটা আর কেউ চাইবে না। সাংবাদিক সম্মেলনে দেশের শীর্ষ ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। তিনি বলেন, আমরা দুই নেত্রীর সঙ্গে সম্ভব হলে আজকেই (গতকাল মঙ্গলবার) দেখা করার চেষ্টা করব। তাদেরকে চলমান রাজনৈতিক সংকট সমাধানের জন্য আহ্বান জানাব। সমাধান না হলে ব্যবসায়ীদের নিয়ে সম্মেলন করব। কর্মসূচি দেব। অল্প কিছুদিনের মধ্যেই সিদ্ধান্ত দেব। আমাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেলে ফিরে দাঁড়াতে হবে। বসে থাকলে চলবে না।

রাজনৈতিক দলগুলোর উপর আরো বেশি চাপ সৃষ্টি করা হবে- এমনটি জানিয়ে কাজী আকরাম বলেন, আজ থেকে মঙ্গলবার প্রেসার শুরু করলাম। এই চাপ এমন পর্যায়ে নিয়ে যাবে যাতে সমঝোতা হয়। আমাদের ছাড়া দেশ চলতে পারে না। ব্যবসায়ীরা হরতালের শিকার- এমনটি জানিয়ে তিনি বলেন, রাজনৈতিক সমঝোতা হলে ধ্বংসাত্মক কর্মসূচি বন্ধ হবে বলে আমরা মনে করি।

প্রসঙ্গত, দেশের চলমান রাজনৈতিক সংকট সমাধানে ব্যবসায়ীরা কার্যকর কোন পদক্ষেপ নিতে পারছিলেন না। এই অবস্থায় গত সোমবার রাতে রাজধানীর একটি হোটেলে শীর্ষ ব্যবসায়ী নেতারা এক বৈঠকে উভয় দলের নেত্রীর সঙ্গে দেখা করার সিদ্ধান্ত নেন। উভয় দলকে রাজপথের বাইরে আলোচনার টেবিলে বসে সমঝোতা করার জন্য একজোট হয়ে চাপ দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন। তবে বর্তমান সংকট সমাধানে ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে কোন ফর্মুলা বা পন্থা দিতে চান না তারা। কাজী আকরাম বলেন, আমরা কোন তত্ত্ব দিতে চাই না। এটার সমাধান তারাই করবেন। আমরা বাধাহীনভাবে ব্যবসা করতে চাই। তারা (রাজনৈতিক দলগুলো) যেমন ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড’ চান আমরাও ব্যবসা করার জন্য ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড’ চাই। তিনি বলেন, হরতালে ধ্বংসের শিকার ব্যবসায়ীরা। অবশ্য এর আগে একাধিকবার চেষ্টা করেও বিরোধীদলীয় নেত্রী খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করার সুযোগ পায়নি এফবিসিসিআইয়ের বর্তমান কমিটি। এ বিষয়ে কাজী আকরাম বলেন, আমরা সম্প্রতি আবার চিঠি দিয়েছি। আশা করি তার সঙ্গে দেখা করতে পারব।

দুই নেত্রীর সাম্প্রতিক ফোনালাপের পর রাজনৈতিক সমঝোতার সম্ভাবনা কতটুকু- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, জাতীয় বিষয় আসার আগে ভাবাবেগের বিষয় আসে। এরপর যে কথা হবে সেটি জাতীয় ইস্যু নিয়েই হবে। আগে তো কথাই হতো না। তবুও আলাপ শুরু হয়েছে। এখন বরফ গলবে। ব্যবসায়ীদের মধ্যে বিভেদ বা অনৈক্য নেই দাবি করে তিনি বলেন, যে যেই মতেই বিশ্বাস করি না কেন ব্যবসায়িক স্বার্থে আমরা ঐক্যবদ্ধ।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি এ কে আজাদ, আনিসুল হক, মীর নাসির হোসেন, ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন, সালমান এফ রহমান, আকরাম হোসেন, ঢাকা চেম্বারের সভাপতি সবুর খান, মেট্রোপলিটন চেম্বারের সভাপতি রোকেয়া এ রহমান, বিজিএমইএ’র সভাপতি আতিকুল ইসলাম, বিকেএমইএ’র সভাপতি সেলিম ওসমান, এফবিসিসিআইয়ের সহ-সভাপতি হেলাল উদ্দিনসহ সংগঠনের সাবেক ও বর্তমান নেতৃবৃন্দ।