প্রসাধনী চাই সিরীয় বিদ্রোহীদের

ঢাকা: সিরীয় বিদ্রোহীদের কথিত পবিত্র যুদ্ধে ওষুধসহ বিপুল পরিমান প্রসাধন  সামগ্রী সরবরাহ করছে পশ্চিমা স্বেচ্ছাসেবকরা। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফ টুইটারে আবু কাকা নামের এক বিদ্রোহীর টুইট পর্যবেক্ষণ করছে দীর্ঘদিন ধরেই। আবু কাকা একজন ব্রিটিশ জিহাদী বলে বিশ্বাস টেলিগ্রাফের।

আবু কাকা তার টুইটার অ্যাকাউন্টে ‘আমার পরচুলা গলে যাচ্ছে’ বলে টুইট করেছে সম্প্রতি।

আবু কাকা’র টুইট অনুযায়ী, ‘নিম্নমানের প্রসাধণ সামগ্রী আধুনিক জিহাদিদের জন্য দুর্যোগ বয়ে আনবে। এখানকার বাতাসেও রোমান্স ভেসে বেড়ায়। এখানে সেবা করার জন্য অনেক বোনেরাই আছে। বিবাহ হরহামেশাই করা যায় এখানে। আমরা সকলেই এখানে বিয়ে করতে চাই।’

১৯৮০ সালে আফগানিস্তানের জিহাদিদের তুলনায় সিরিয়ার জিহাদিরা অনেক সুযোগ সুবিধা পাচ্ছে। তারা একদিকে নেট সংযোগতো পাচ্ছেই এছাড়াও তাদের পরিবারের সঙ্গে অনলাইনে চ্যাটও করছে তারা। এমনকি অনলাইনে গেমসও খেলছে সিরীয় জিহাদিরা।

এই সব সুযোগ সুবিধা দিয়ে বিদ্রোহী দলে সৈন্য সংগ্রহ করা হচ্ছে বলে জানায় মধ্যপ্রাচ্যের যুদ্ধ বিষয়ক বিশেষজ্ঞ সিরাজ মাহের।

তিনি আরো বলেন, ‘আফগানিস্তানের কান্দাহারের জিহাদিদের কথা ভাবুন আর এদিকে সিরীয় জিহাদিদের কথা ভাবুন। সিরীয় বিদ্রোহীরা তাদের কিটক্যাট খাওয়া এবং রেড বুল পানীয় খাওয়ার ছবি টুইটারে টুইট করছে। তারা জানে যে শহীদ নয়তো জিহাদি হিসেবে তারা মারা যেতে যাচ্ছে। কিন্তু তাও তারা নিজেদের মত থাকছে।’