শীতের সুরক্ষায় সজীব সাজের নানা টিপস

শীতের সুরক্ষায় সজীব সাজের নানা টিপস
সাদিয়া চৌধুরী
আসছে শীত। আর শীতে শুরু হয় উৎসবের ধুম। আজ কারও গায়ে হলুদ, কাল বিয়ে, পরশু জন্মদিন এই করতে করতেই কেটে যায় শীতকালটা। তবে উপলক্ষ যা-ই হোক, উৎসবের জন্য চাই উৎসবমুখর সাজ।
শীতে রুক্ষ প্রকৃতিতে ত্বকও রুক্ষ হয়ে ওঠে। অনেকেরই ত্বক ফাটা, খসখসে হয়ে যাওয়ার প্রবণতাও দেখা যায়। আর প্রকৃতিতে এ সময় যেহেতু ধুলোবালুর রাজত্ব বেশি থাকে, তাই সাজগোজের আগে অবশ্যই ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ-হাত খুব ভালোভাবে ধুয়ে নিতে হবে।
রূপবিশেষজ্ঞ এলিগেন্স হেয়ার অ্যান্ড বিউটি পারলারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নীপা মাহবুব বলেন, মুখ হাত ধুয়ে পরিষ্কার রাখার পাশাপাশি যদি মৃদু স্ক্রাবার দিয়ে খুব ধীরে ধীরে ঘড়ির কাঁটার দিকে ও বিপরীতে ত্বক ম্যাসাজ করলে এতে মরা কোষগুলো উঠে যাবে।
এরপর ত্বককে পুষ্টি দেওয়ার পালা। আপনার ত্বকের ধরন অনুযায়ী ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন ত্বকে। ১০ মিনিট বিরতি দিন।
শুষ্ক পাউডার ব্যবহার না করে শীতে ফাউন্ডেশন হিসেবে অয়েল বেজড ফাউন্ডেশন বা ক্রিমি ফাউন্ডেশন বেছে নিন। এতে ত্বক সতেজ লাগবে।
ক্রিমি ফাউন্ডেশনের ওপর আলতো করে ফেস পাউডার লাগিয়ে নিতে পারেন। যদি আপনার ত্বক বেশি শুষ্ক হয়, এটা না দেওয়াই ভালো বলে জানান নীপা মাহবুব। অথবা গ্লিটার পাউডারও লাগাতে পারেন।
উৎসবের সাজটা গাঢ় করতে ব্লাশঅন ছাড়াও দিতে পারেন গ্লিটারি। তবে যদি ফেস পাউডার গ্লিটারি হয়, তাহলে সাধারণ ব্লাশঅনটাই লাগাতে হবে।
শীতে যেহেতু ঘামের ভয় নেই, তাই ইচ্ছেমতো মেকআপ করারও ভয় পাবার দরকার নেই। দিনের বেলায় হালকা হলেও রাতে অবশ্যই গাঢ় মেকআপ করতে পারেন খুব সহজেই।
চোখের সাজ করতে পারেন স্মোকি করে। আইশ্যাডো পোশাকের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে দিলেও কালো আর সোনালির ছোঁয়া রাখতে পারেন চোখে।
চোখ সাজাতে কাজল যাদের পছন্দ, তাদের নিশ্চয়ই গরমের সময়ে মন খারাপ থাকে। শীতে কিন্তু কাজল ছড়িয়ে পড়ার ভয় নেই। তাই এ সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেন। নীল, সবুজ, ময়ূর, কালো যেকোনো রং টানতে পারেন চোখের কোণে। আইলাইনার কাজল যা-ই দিন না কেন, মাশকারাটাও দিতে ভুল করবেন না। চোখের পাপড়িগুলো সাজিয়ে তুলতে মাশকারা ব্যবহার করুন। তবে পানি রোধ হলেই ভালো।
শীতের সময় ত্বকের মধ্যে সবচেয়ে বেশি রুক্ষ হয় ঠোঁট। তাই ঠোঁটের নিয়মিত যতœ নিন। নিয়মিত লিপবাম লাগান। শীতের লিপবামটা যেন সানস্ক্রিন যুক্ত হয় সে দিকে দৃষ্টি রাখতে হবে।
ঠোঁট সাজাতে শীতে শুষ্ক লিপস্টিক বাদ দিয়ে লিপগ্লস বেছে নিন। ঠোঁটের রঙের অথবা হালকা গোলাপি একটি লিপগ্লস সব সময় ব্যাগেই রেখে দিতে পারেন।
বেয়াড়া চুলগুলোকে শীতে ইচ্ছেমতো উড়তে দিতে পারেন। বছরের এ সময়টায় নিশ্চিন্তে চুল খোলা রেখে ঘুরে বেড়াতে পারেন। রূপবিশেষজ্ঞ নীপা মাহবুব বলেন, চুল রং করা বা রিবন্ডিং যে রকমই হোক, চুলে রোদ প্রতিরোধক কন্ডিশনার ও জেল না লাগিয়ে বের হবেন না। কারণ, শীতের মিষ্টি রোদ চুলের ক্ষতির কারণও হতে পারে।
পোশাকের সঙ্গে মিল রেখে চুল বাঁধতেও পারেন। শাড়ির সঙ্গে খোঁপা করা যায়। আর তাতে শীতের কোনো রঙিন ফুল গুঁজে দিতে ভুল করবেন না। সাজ পরিপূর্ণ। এবার মেতে উঠুন শীত উৎসবে।
সূত্রঃ শীর্ষ কাগজ
স্বাস্থ্য ও ফিটনেস , লাইফ ষ্টাইল