আজ সুদূর আমেরিকাতেও শেখ কামালের নাম

ক্রিকেটের হাত ধরে আজ সুদূর আমেরিকাতেও শেখ কামালের নাম

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টাইগারদের টেস্ট ম্যাচ নিয়ে সারা দেশ যখন উত্তেজনা ও আনন্দে দুলছিলো ঠিক তখনই উত্তর আমেরিকার “সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়া ক্রিকেট এসোসিয়েশন” তাদের প্রতি বছর অনুষ্ঠিত হওয়া “লেবার ডে” এর লং হলিডের টি-টুয়েন্টি টুর্নামেন্টটি অনুষ্ঠিত করলো “শেখ কামাল” এর স্মরণে। সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়া ক্রিকেট এসোসিয়েশন (এসসিসিএ) এই প্রতিযোগিতা উৎসর্গ করে “শেখ কামাল মেমোরিয়াল ইউএসএ ওয়েস্টার্ন রিজিওনাল চ্যাম্পিয়নশিপ নামে।

এই ম্যাচটি নর্থ আমেরিকার একটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ, যা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে লস এঞ্জেলেসের উডলি পার্কে, যেখানে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, শ্রীলংকা, ভারত, পাকিস্তানসহ অনেক দেশই খেলে থাকেন। এই পার্কটি মোট চারটি ক্রিকেট মাঠে সাজানো। ১৯৩২ সালে প্রতিষ্ঠিত সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়া ক্রিকেট এসোসিয়েশন প্রতিবছরই এই সময়ে এই ম্যাচটি আয়োজন করে থাকে। এবার যেটি শেখ কামালের নামে পেলো এক ভিন্নমাত্রা। তাদের এবারের আয়োজনে সেপ্টেম্বরের দুই, তিন ও চার তারিখে মোট ছয়টি টিমের মধ্যে তিনটি মাঠে একই সময়ে এই ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শেখ কামাল – ছবি শফিকুল আলম স্বপন

উত্তর আমেরিকার বিভিন্ন অঙ্গরাজ্য থেকে কোয়ালিফাই হয়ে আসা টিমগুলোর মধ্যে ছিলো, নর্দান ক্যালিফোর্নিয়া ক্রিকেট এসোসিয়েশন, সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়া ক্রিকেট এসোসিয়েশন, ইউটাহ, কলোরাডো, সিয়াটেল ও এরিজোনা ক্রিকেট টিম। এই প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ান ট্রফিটি জয় করে নেয় নর্দান ক্যালিফোর্নিয়া ক্রিকেট এসোসিয়েশন ও রানার আপ হয় সিয়াটেল টিম।

৪ই সেপ্টেম্বর বিকালে উত্তর আমেরিকার সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়া ক্রিকেট এসোসিয়েশন এর পক্ষে আমেরিকায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন চ্যাম্পিয়ন ও রানার আপ টিমের হাতে ট্রফি তুলে দেন। সমাপনী অনুষ্ঠানে সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়া ক্রিকেট এসোসিয়েশন ও অন্যান্য টিমের কর্মকর্তাসহ লস এঞ্জেলেস বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল পরিতোষ সাহা ও কমিউনিটির প্রিয়মুখ ডাক্তার রবি আলম উপস্থিত ছিলেন। প্রচন্ড গরমের মধ্যেও অনেক দর্শকের ভিড়ে লস এঞ্জেলেসে বসবাসকারী বাঙালী আমেরিকানদের সমাগম ছিল চোখে পড়ার মতো। বাংলাদেশের কোন টিম এই টুর্নামেন্টে অংশ না নিলেও সেখানে বাঙালিদের চেহারায় ফুটে উঠেছিল এক বিজয়ের আভা যা ছিল আমেরিকার বুকে শেখ কামালের কৃতিত্বের মূল্যায়নের আনন্দ।

৩২ বছর ধরে লস এঞ্জেলেসে বসবাসকারী মোবারক হোসেন জানালেন, “আমি একজন অসুস্থ মানুষ, ক্রিকেট বোদ্ধাও নই তথাপি এই ১১০ ডিগ্রি গরম উপেক্ষা করেও মাঠে ছুটে এসেছি শুধুমাত্র শেখ কামালের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করতে। সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়া ক্রিকেট এসোসিয়েশন যে সম্মান আজ শেখ কামালকে দিলেন এতে আমরাও সম্মানিত হয়েছি।”

সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়া ক্রিকেট এসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান ও এই ম্যাচের কো-অর্ডিনেটর সৈয়াদ নাজীম সিরাজীর কাছে প্রশ্ন ছিল, “কেন তারা ইউএসএ ওয়েস্টার্ন রিজিওনাল ক্রিকেট টুর্নামেন্টটি শেখ কামালের নামে উৎসর্গ করলেন?” উত্তরে তিনি বলেন, “আমাকে ডাক্তার রবি আলম প্রায় দুই বছর আগে প্রথম এই প্রস্তাব দেন, এরপর থেকে আমরা একজন ক্রিয়া সংগঠক শেখ কামালের কর্মের অনুসন্ধান করতে গিয়ে যা পাই তাতে আমি নিজেও বিস্মিত হই এই ভেবে যে, একজন জাতির পিতার সন্তান হয়েও তিনি রাজনীতিতে না জড়িয়ে সদ্য স্বাধীন হওয়া একটা দেশের যুবসমাজের দিকেই নজর দিয়েছিলেন। তিনি আবাহনী নামে একটা ক্লাব বানিয়ে সেখানে ফুটবল এর সাথে ক্রিকেটেরও সফল পৃষ্ঠপোষকতা করেছিলেন। যার ফল আজ বাংলাদেশের জাতীয় ক্রিকেট টিম ভোগ করছে। শুধু তাই নয়, তিনি স্পন্দন নামে একটা সংগীত গোষ্ঠীও তৈরী করেছিলেন যেখান থেকে জন্ম নিয়েছিল অনেক প্রতিষ্ঠিত শিল্পী যা তখনকার প্রজন্মকে এনে দিয়েছিলো এক নতুন জাগরণ। যা আমাকে সত্যি মোহিত করে। আর আমি তা সফল ভাবেই উপস্থাপন করতে পেরেছিলাম আমাদের এসোসিয়েশনের নীতি-নির্ধারকদের কাছে। ক্রীড়া ও সংস্কৃতি যে দেশ গড়ার কাজে বিরাট ভূমিকা রাখতে পারে সেটাই সম্পূর্ণভাবে ফুটে উঠেছিল শেখ কামালের স্বল্পকালীন বর্ণাঢ্য জীবনে। আর এ কারণেই এসসিসিএ শেখ কামালের মতো একজন সংগঠককে সম্মানিত করে তারা নিজেরাই সম্মানিত হয়েছেন।”

১৯৯৮ সাল থেকে লস এঞ্জেলেস নিবাসী লস এঞ্জেলেস গ্লেনডেল এডভ্যান্টিস হসপিটালের মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডক্টর রবি আলম তার অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন, “ছোটবেলায় শেখ কামালের নামে  কিছু অপবাদ শুনতাম যা বড় হয়ে জানলাম যে, এগুলো ছিল ডাহা মিথ্যা, প্রোপাগান্ডা। যা ছিল শুধুই জাতির পিতার হত্যাকাণ্ডকে স্বীকৃতি দেবারই একটা অপচেষ্টা। যা আমাকে সবসমই ভাবিয়ে তুলতো। সেখান থেকেই শেখ কামালকে তার নিজের গুনে মূল্যায়িত করার একটা ইচ্ছা সব সময়ই আমার মনের ভিতরে কাজ করতো। সেই ইচ্ছার বাস্তবায়নই হলো আজকের টুর্নামেন্টে তার নামটি জড়িয়ে দিতে পেরে।”

নীতিনির্ধারকদের সম্মানে এক নৈশভোজের আযোজন করা হয়, যেখানে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন, লস এঞ্জেলেস কনসোল জেনারেল প্রিয়তোষ সাহা সহ কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। তারা শেখ কামালের বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবনের উপর আলোকপাত করেন। এসময় এক সময়ের বাংলাদেশ দলের ওপেনিং ব্যাটসম্যান বর্তমানে এসসিসিএ এর চেয়ারম্যান সৈয়দ নাজীম সিরাজী জানালেন, তারা ভবিষ্যতে প্রতিবছরই এই টুর্নামেন্টটি করার উদ্যোগ নেবেন, যেখানে তারা বাংলাদেশের জাতীয় টিমকেও আমন্ত্রণ জানাবেন।

আল-আমিন বাবু, লস এঞ্জেলেস।

By Ekush News Desk on September 10, 2017 · Posted in আমেরিকা, কমিউনিটি সংবাদ, লস এঞ্জেলেস

Sorry, comments are closed on this post.