১২ জেলায় দুদকের নতুন কার্যালয় উদ্বোধন

ঢাকা: দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কার্যক্রম আরও গতিশীল করার লক্ষ্যে দেশের ১২ জেলায় একযোগে নতুন কার্যালয় চালু করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন। চলমান ২৪টি সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সঙ্গে নতুন করে যুক্ত হয়েছে এই ১২টি কার্যালয়।

রোববার (৩ জুলাই) দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ, কমিশনার (অনুসন্ধান) ড. মো. মোজাম্মেল হক খান, কমিশনার (তদন্ত) মো. জহুরুল হক, দুদকের সচিব মো. মাহবুব হোসেন ও দুদকের মহাপরিচালকরা কার্যালয়গুলো একযোগে উদ্বোধন করেন।

কমিশনের কমিশনার (অনুসন্ধান) ড. মো. মোজাম্মেল হক খান বলেন, ঘুষ ও দুর্নীতির সুযোগ থাকা সত্ত্বেও যিনি নিজেকে মুক্ত রাখেন তিনি সত্যিকারের বাহবা পাওয়ার যোগ্য। সমাজে একটা ধারণা আছে যে কেবল চাকরিজীবীই দুর্নীতিবাজ। কিন্তু প্রকৃত অর্থে দুর্নীতি আরও বিস্তৃত হয়ে গেছে। বিভিন্ন পেশাজীবীরাও দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়েছে। ব্যবসায়ী দুর্নীতি করে। মেয়াদহীন ওষুধ বিক্রি সরকারি কেনাকাটায়, চাকরিতে নিয়োগে, সরকারি পরিষেবা দেওয়ায় দুর্নীতি হয়। এমনকি টাকার বিনিময়ে মানুষ মিথ্যা সাক্ষী দেয়া, মিথ্যা মামলা দেওয়া এগুলো সবই দুর্নীতি। অদৃশ্য ও টেকনিক্যাল দুর্নীতি গুলো তৃতীয় চোখ দিয়ে দেখতে হয়।

কমিশনের সচিব মো. মাহবুব হোসেন বলেছেন, কেবল আইন করে দুর্নীতি বন্ধ করা যাবে না। দুর্নীতি বন্ধ করতে হলে সারা দেশের জনগণসহ তরুণ সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে।

তিনি বলেন, দুর্নীতি প্রতিরোধে জনগণকে সচেতন করার কার্যক্রম চলছে। এরপরও যারা নিয়ম-কানুন না মেনে দুর্নীতি-অনিয়ম করেছে, অবৈধভাবে অর্থসম্পদের মালিক হচ্ছে তাদের জন্য বার্তা হচ্ছে, দুর্নীতি দমন কমিশন তৎপর রয়েছে। যেকোনো বিষয় দল মত নির্বিশেষে কমিশন খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেবে।

যে ১২ জেলায় দুদকের কার্যালয় চালু হয়েছে: নারায়ণগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সীগঞ্জ), গাজীপুর (গাজীপুর ও নরসিংদী), গোপালগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, জামালপুর (জামালপুর ও শেরপুর), নওগাঁ (নওগাঁ ও জয়পুরহাট), কুড়িগ্রাম (কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাট), ঠাকুরগাঁ ( ঠাকুরগাঁ ও পঞ্চগড়), চাঁদপুর (চাঁদপুর ও লক্ষ্মীপুর), বাগেরহাট (বাগেরহাট ও সাতক্ষীরা), ঝিনাইদহ (ঝিনাইদহ, মাগুরা ও চুয়াডাঙ্গা) ও পিরোজপুর (পিরোজপুর ও ঝালকাঠি) সমন্বিত জেলা কার্যালয়।